• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া ও লালফৌজের রণতরী? চরম উত্তেজনায় ফুটছে দক্ষিণ চিন সাগরের জল!

দক্ষিণ চিন সাগরের বিবাদপূর্ণ জলসীমায় মুখোমুখি হল অস্ট্রেলিয়া ও চিনের রণতরী। আর এতেই তৈরি হয় চরম উত্তেজনার। দক্ষিণ চিন সাগরে চিনের আস্ফালনও মেনে নিতে পারছে না ট্রাম্প প্রশাসন। আর সেই কারণেই দক্ষিণ চিন সাগরে সম্ভবত 'কোয়াড' টিমের পদার্পণ হচ্ছে। কারণ এবার ভারতের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে জোট বাঁধতে চলেছে। তার আগে অস্ট্রেলিয়া, জাপান ও অস্ট্রেলিয়া প্রশান্ত মহাসাগরে মহড়া দিচ্ছে। সেই সময়ই এই ঘটনা ঘটে।

দক্ষিণ এশিয়ার সংঘাতের কূটনীতিতে অস্ট্রেলিায়র প্রবেশ

দক্ষিণ এশিয়ার সংঘাতের কূটনীতিতে অস্ট্রেলিায়র প্রবেশ

'কোয়াড' সদস্যভূক্ত অস্ট্রেলিয়া এবার দক্ষিণ এশিয়ার সংঘাতের কূটনীতির ময়দানে। এতদিন পর্যন্ত দক্ষিণ চিন সাগরে মহড়ার ক্ষেত্রে আমেরিকার সঙ্গে ভারত ও জাপানের নাম উঠে আসছিল। এবার সেখানে অস্ট্রেলিয়ার নাম জুড়ে যাওয়ায়, রীতিমতো তোলপাড় পড়ে গিয়েছে বিশ্ব রাজনীতিতে। চাপে পড়েছে চিনও।

মহড়ায় নেমছে মার্কিন যুদ্ধবিমান ক্যারিয়ার রোনাল্ড রেগান

মহড়ায় নেমছে মার্কিন যুদ্ধবিমান ক্যারিয়ার রোনাল্ড রেগান

চিন এই মুহূর্তে মার্কিন চক্ষুশূল। বেজিং এর আগ্রাসী নীতি ও প্রতিবেশী দেশের ভূখণ্ডে কোপের নীতি কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না আমেরিকা। মার্কিন যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস নিমিৎসের সঙ্গে ভারতের নৌসেনা যৌথ মহড়ায় বেশ কয়েকদিন আগেই নেমেছে। আন্দামানের কাছে সেই মহড়া শেষ হতেই, এবার দক্ষিণ চিন সাগরের মুখে অস্ট্রেলিয়া ও জাপানের মতো দেশের নৌসেনার সঙ্গে মহড়ায় নেমছে মার্কিন যুদ্ধবিমান ক্যারিয়ার রোনাল্ড রেগান।

চিনের বিরুদ্ধে ঘুঁটি

চিনের বিরুদ্ধে ঘুঁটি

মনে করা হচ্ছে, আমেরিকা বুঝে শুনে চিনের বিরুদ্ধে ঘুঁটি সাজাচ্ছে। জলপথে চিনক রুখতে দক্ষিণ চিন সাগরে মার্কিন সহযোগী হিসাবে তারা ভারতকে দেখছে। অন্যদিকে, ইন্দো প্যাসিফিক জলসীমায় তারা অস্ট্রেলিয়া ও ইওরোপকে পাশে চাইছে। আবারা জাপান-চিন সংঘাতের আবহে জাপানের সঙ্গে আমেরিকা জোট বেঁধে নৌসেনা মহড়ায় রয়েছে।

চিনের উপর আন্তর্জাতিক চাপ

চিনের উপর আন্তর্জাতিক চাপ

১৫ জুন লাদাখে চিনের রক্তক্ষয়ী হামলার জবাব দিতে গিয়ে শহিদ হন ভারতের ২০ জন সেনা। এরপরই আন্দামানের জলসীমায় এই নৌসেনার মহড়া এশিয়ার রাজনীতিতে প্রাসঙ্গিক হতে শুরু করেছে। এর আগে, ফ্রান্স ও জাপানের নৌসেনার সঙ্গে একইভাবে মহড়া দিতে শুরু করে ভারত। যে জাপানের সঙ্গে এই মুহূর্তে সম্পর্কের উন্নতি হয়নি চিনের। অন্যদিকে, ফ্রান্সও পরোক্ষে লাদাখ প্রসঙ্গে ভারতের প্রতি সমর্থন বার্তা পাঠিয়েছে।

চিনা 'হাতিয়ার' টিকটক কিনতে মরিয়া ট্রাম্পের আমেরিকা! জমে উঠেছে ডিজিটাল স্পেস দখলের লড়াই

English summary
Why did Australian and Chinese warships face each other in the disputed territory of South China Sea
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X