• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

'নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন মৌলিকভাবে বৈষম্যমূলক', মত রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশন প্রধানের

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ২০১৯ মৌলিকভাবে বৈষম্যমূলক। এমনই কথা বললেন রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক দূত মিচেল ব্যাচলেট। তিনি আরও আশঙ্কা প্রকাশ বলেন এই নাগরিকত্ব আইন আন্তর্জাতিক আইনের প্রতি ভারতের দায়বদ্ধতার পরিপন্থি ও এটি ভারতের সংবিধানকেও খর্ব করে বলে মত প্রকাশ করেন।

অসমে বিক্ষোভকারীদের মৃত্যুতে আশঙ্কা প্রকাশ

অসমে বিক্ষোভকারীদের মৃত্যুতে আশঙ্কা প্রকাশ

রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক দফতর এর আগেও সদ্য আইনে পরিণত হওয়া এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিল। পাশাপাশি এই আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শনের সময় অসমে দুইজনের প্রাণহানীর খবরেও আশঙ্কা প্রকাশ করে সব পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছিল তারা।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন মৌলিকভাবে বৈষম্যমূলক প্রকৃতির

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন মৌলিকভাবে বৈষম্যমূলক প্রকৃতির

এদিকে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকারের প্রধান মিচেল ব্যাচলেট এই আইন নিয়ে বলেন, 'আমরা আশঙ্কিত কারণ, আমাদের মনে হচ্ছে ভারতে প্রনোয়ণ করা এই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন মৌলিকভাবে বৈষম্যমূলক প্রকৃতির। আমরা এই বিষয়ে খতিয়ে দেখছি। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সম্পর্কিত আইনের ক্ষেত্রে ভারতের দায়বদ্ধতাকে এই আইন খর্ব করছে কি না, তা ও দেখা হচ্ছে।'

'আইনের সামনে সবার সমান অধিকার থাকা উচিত'

'আইনের সামনে সবার সমান অধিকার থাকা উচিত'

এই বিষয়ে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক মুখপাত্র জেরেমি লরেন্স বলেন, 'আইনের সামনে সবার সমান অধিকার থাকা উচিত। ভারত এমন একটা দেশ যারা জাতি, ধর্মের ভিত্তিতে ভেদাভেদে বিশ্বাস করে না। এই আইনের জেরে ভারতে নাগরিকত্ব পাওয়ার ক্ষেত্রে বৌষম্যের শিকার হতে পারেন অনেকে।'

English summary
united nations hrc chief said that citizenship amendment act in fundamentally discriminatory
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X