• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

প্রতিরোধের কোনও সুযোগই পেল না পাকিস্তান, মোদীর চালে সুষমা পুরো 'অ্যাটমবোমা' ফেললেন

  • By Oneindia Staff
  • |

সীমান্তপারের সন্ত্রাস নিয়ে পাকিস্তানের অবস্থানে ভারত খুশি নয়। পুলওয়ামায় সিআরপিএফ কনভয়ে হামলার পরই তা পরিষ্কার করে দিয়েছে নয়াদিল্লি। ১৫ ফেব্রুয়ারি সংবাদমাধ্যমকে বলেই দেওয়া হয়েছিল ভারত এবার কূটনীতিক স্তরেও পাকিস্তানকে একঘরে করার চেষ্টা চালিয়ে যাবে। সেই মোতাবেক এই কয়েক দিনে বেশকিছু তাৎপর্যমূলক পদক্ষেপ হয়েছে ভারতের পক্ষ থেকে এবং তার বিনিময়ে আন্তর্জাতিক দুনিয়া পাকিস্তানের উপরে চাপও বাড়িয়েছে।

এবার পাকিস্তানকে ইসলামিক দুনিয়ার রাষ্ট্রজোটেও নাস্তানাবুদ করল ভারত। আবু ধাবি-তে অনুষ্ঠিত ওআইসি-র বৈঠকেও পাকিস্তানকে কথার মারপ্যাঁচে ব্যাকফুটে ঠেললেন সুষমা স্বরাজ। ইসলামিক দুনিয়ার ওআইসি-র সম্মেলনে বসেই অতিথি বক্তা হিসাবে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ সাফ জানিয়েছেন যদি মানবতাকে রক্ষা করতে হয় তাহলে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামতে হবে। বিশেষ করে যে সব দেশ সন্ত্রাসের মদতদাতা হিসাবেই কাজ করছে না জঙ্গিদের আশ্রয় এবং অর্থ দিয়ে সাহায্য করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া ছাড়া আর কোনও রাস্তা খোলা নেই। সুষমা স্বরাজ আর কী কী বলেছেন, একনজরে দেখে নিন-

ধর্মের অপব্যাখ্যা করে সন্ত্রাস

ওআইসি সম্মেলনে সন্ত্রাস নিয়ে কথা বলতে গিয়ে প্রথমেই ধর্মের অপব্যাখ্যার প্রসঙ্গকে টানেন সুষমা স্বরাজ। তিনি কঠোরভাবে ধর্মের নামে সন্ত্রাসের বিরোধিতা করেন এবং ভারত যে এই ধরনের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে তাও পরিষ্কার করে দেন। তিনি বলেন , ধর্মের অপব্যাখ্য়া করে সন্ত্রাস করা হচ্ছে। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই মানে ধর্মের বিরুদ্ধে অভিযান নয়। তিনি সেই সঙ্গে আরও যুক্ত করে বলেন, ইসলাম মানে শান্তি, আল্লাহের ৯৯টা নাম মানে হিংসা নয়। তেমনি প্রতিটি ধর্মই শান্তির পক্ষেই সওয়াল করে।

ভারতীয় মুসলিমরা বৈচিত্রের এক প্রাণভোমরা

বিদেশমন্ত্রী বলেন, ভারতে ১.৩ বিলিয়ন জনসংখ্যার ১৮৫ মিলিয়ন হল মুসলিম। 'আমাদের দেশে বসবাসকারী মুসিলম ভাই ও বোনেরা বৈচিত্রের মধ্যে এক প্রাণভোমরা। তাঁরা তাঁদের মতো করে নিজস্ব ধর্মীয় বিশ্বাসকে পালন করেন এবং ভিন্ন ধর্মালম্বীদের সঙ্গে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করেন। ভারেতে খুবই কতিপয় কিছু মুসলিম আছেন যাদের মৌলবাদীরা প্রোপাগান্ডা এবং চরমপন্থার পথে পরিচালনা করা যায়।'

সন্ত্রাস জীবনকে ধ্বংস করছে

সুষমা স্বরাজ তাঁর বক্তব্যে একথা বলেন যে, 'সন্ত্রাস জীবনকে যেমন ধ্বংস করছে, তেমনি আঞ্চলিক স্থিরতাকেই নষ্ট করছে এবং বিশ্বকে একটা ধ্বংসের মধ্যে ঠেলে দিচ্ছে। সন্ত্রাস বাড়ছে এবং এতে শিকারের সংখ্যাটাও বেড়ে যাচ্ছে।'

বেদের প্রসঙ্গে সুষমা

ওআইসি সম্মেলনে বেদ-কেও টেনে আনেন সুষমা স্বরাজ। ঋকবেদে যে ঈশ্বরকে এক ও অদ্বিতীয় বলে দেখানো হয়েছে এবং জগতে এটাই যে সত্য তা তুলে ধরেন তিনি। বিদেশমনমন্ত্রী বলে আসলে এক এক মানুষ তাঁর ধর্মের ভেদে ঈশ্বরকে তাঁর মতো করে কল্পনা করেন। কিন্তু, আসলে ঈশ্বর একজনই।

মহাত্মা গান্ধীর দেশের লোক

এদিন ওআইসি-র মঞ্চে মহাত্মা গান্ধীর অহিংস মন্ত্রকেও হাতিয়ার করেন সুষমা স্বরাজ। তিনি বলেন, 'আমি মহাত্মা গান্ধীর দেশ থেকে এসেছি, যেখানে প্রতিটি প্রার্থনাই শেষ হয় শান্তির কামনা করে।'

সন্ত্রাসের মদতদাতাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ

তাঁর বক্তব্যের এইস্থানে পাকিস্তানের নাম না করে তীব্র আক্রমণ করেন সুষমা। ইসলামিক দুনিয়ার সামনেই বলেন, 'মানবতাকে রক্ষা করতে হলে সেই সমস্ত দেশগুলোকে চরম বার্তা দিতে হবে যারা জঙ্গিদের মদত দেয় এবং আশ্রয় ও অর্থ দিয়ে সাহায্য় করে। এইসব দেশে চলা সন্ত্রাসের কারখানাগুলো ধ্বংস করে দিতে হবে এবং সেই দেশে গেড়ে থাকা সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলি যাতে কোনও সাহায্য বা আশ্রয় না পায় তাও নিশ্চিত করতে হবে।'

More sushma swaraj NewsView All

English summary
We have to act against the terrorism to save the humanity against those countries who are sheltering and funding terrorism.
For Daily Alerts

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more