• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

সাহারায় শিহরণ! মরুভূমিতে তুষারপাত, দেখুন ছবি

শুষ্ক বালিকে ঢেকে ফেলছে তুলোর মতো বরফ। শুষ্কতার ভরা কাঠিন্যকে ক্রমে গিলছে শীতল বার্ধক্য। আর এভাবেই প্রকৃতি মেতে রয়েছে নিজের খেলায়। এই অদ্ভুত দৃশ্য সাহারা মরুভূমির। ৩৭ বছরে এই নিয়ে তৃতীয়বার সাহারা মরভূমিতে হল বরফ পাত।

অলজেরিয়ার ছবি

অলজেরিয়ার ছবি

অলজেরিয়ার এইন সেফরা মরু অঞ্চল আপাতত ভিজছে তুষারে। হলুদ বালিকে ধীরে ধীরে নিজের কবলে নিয়ে ফেলেছে শ্বেত শুভ্র তুষার। আর এই ভাবেই আফ্রিকার প্রকৃতি দেখছে এক অনন্য খেলা।

[আরও পড়ুন:কলকাতার ঠান্ডায় কাবু! বিশ্বের সবচেয়ে শীতল গ্রামের সম্পর্কে জানেন কি ]

তাপমাত্রা

তাপমাত্রা

গরমের দিনে আফ্রিকার সাহারা মরুভূমির তাপমাত্রা হেলায় ছাড়িয়ে যায় ৪০ ডিগ্রিকে। আর সেই জায়গা জুড়েই একন বরফ। গোটা সাহারাকে ঢেকে ফেলেছে শীতের রাজত্ব।

প্রথমবার কবে বরফপাত হয়?

প্রথমবার কবে বরফপাত হয়?

সাহারা মরভূমিতে বরফপাত এই প্রথম নয়। ২০১৬ সালে বেশ জাঁকিয়ে বরফপাত হয়েছে। এরপর ২০১৭ সালে একই ঘটনা ঘটে। এর আগে, ১৯৭৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারিতেও এইন সেফরাতে তুষার ঝড় দেখা গিয়েছিল।

কীরকম বরফ পড়েছে এই বছরে

কীরকম বরফ পড়েছে এই বছরে

সাহারাতে ৪০ সেন্টিমিটার বরফ পড়েছে এ পর্যন্ত। মরু অঞ্চলের শুষ্ক বালির ওপর ১৬ সেন্টিমিটার পুরু বরফ জমে রয়েছে এই মুহুর্তে । তবে বিকেল ৫ টা নাগাদ সেখানে বরফ একটু একটু করে গলতে দেখা যায় বলে জানিয়েছেন এক ফটোগ্রাফার।

কেন পড়ছে এই বরফ

কেন পড়ছে এই বরফ

অনেক আবহাওয়াবিদ মনে করেন, ইওরোপে নিম্নচাপের দাপটে ক্রমেই তুষারপাত শুরু হয়েছে সাহারাতে। যা এক্কেবারেই আস্বাভাবিক কোনও ব্যাপার।

English summary
Stretches of yellowy-red sand dunes in the Sahara Desert, which are otherwise fuming hot for most of the year, are currently streaked whith white snow.
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more