• search

বিবৃতিই সাড়, পরমাণু কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া - দাবি মনিটরিং গ্রুপের

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    ঘটা করে সিঙ্গাপুরে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক, ট্রাম্পের সঙ্গে পোজ দিয়ে ছবি তোলাই সার। উত্তর কোরিয়া আছে উত্তর কোরিয়ার মতোই। মুখে তারা যতই পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের কথা বলুক, এখনও সেদেশের একমাত্র জ্ঞাত পরমাণু চুল্লি ইয়ংবিয়ং-কে উন্নত করছে তাদের পরমাণু অস্ত্র প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য। এমনটাই দাবি করেছে ৩৮ নর্থ নামে একটি মনিটরিং গোষ্ঠী।

    পরমাণু কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া

    তারা দাবি করেছে গত ২২ জুন তাদের উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে ধরা পড়েছে প্লুটোনিয়াম উৎপাদনের রিঅ্যাক্টরটির কুলিং সিস্টেম'-এ রদবদল আনা হয়েছে। দুটি নতুন অবানিজ্যিক বিল্ডিং গড়া হয়েছে। যেগুলি মনিটরিং গোষ্ঠীটির দাবি অনুযায়ী সম্ভবত সফররত উত্তরকোরিয় অফিসারদের অফিস বাড়ি হিসেবে গড়া হয়েছে। একটি নতুন ইঞ্জিনিয়ারিং বিল্ডিং-ও স্থাপিত হয়েছে। সেই সঙ্গে সাপ্লাই এলাকায় একের পর এক নতুন নির্মাণের কাজ চলছে।

    গত দুই মাসে প্রথমে দক্ষিণ কোরিয় প্রেসিডেন্ট মুল জায়ে ইন ও পরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। দুই বৈঠকেই তিনি কোরিয়া উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্র মুক্ত করার কথা ঘোষণা করেছিলেন। গত মে মাসে সেদেশের একমাত্র জ্ঞাত পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষাকেন্দ্র পুঙ্গেরী-ও তিনি বন্ধ করে দেন দেশ-বিদেশের সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে। কিন্তু পরমমাণু নিরস্ত্রীকরণ সংক্রান্ত কোনও চুক্তি সাক্ষর হয়নি।

    অনেকের অবশ্য ধারণা ইয়ংবিয়ং-এর এই নয়া নির্মাণকাজের সবটাই পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের কথআ মাথায় রেখেই। কিন্তু বাস্তবটা তা নয় বলেই সতর্ক করছেন বিশেষজ্ঞরা। ইয়ংবিয়ং-এ এইসব নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল আগেই এবং এখনও তাতে কোনও বিরতি দেখা যায়নি। তাদের দাবি পিয়ংইং থেকে নির্দিষ্ট নির্দেশ না আসলে ইয়ংবিয়ং-এ করমকাণ্ড যথারীতি চলতেই থাকবে। তাঁরা বলছেন এই জন্যই বড় বড় বিবৃতি দান নয়, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে একটি চুক্তি হওয়া উচিত ছিল।

    English summary
    A Monitoring group claims satellite images show North Korea making 'rapid' upgrades to nuclear reactor despite summit pledges.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more