• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বায়ু বাহিত হয়ে সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে করোনা ভাইরাসের, দাবি মার্কিন সিডিসির

মারণ করোনা ভাইরাস বায়ু বাহিত হয়ে সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কোভিড–১৯–এর জনস্বাস্থ্য নির্দেশিকা সংশোধন করে মার্কিন সিডিসি জানিয়েছে যে সার্স–কোভ–২, যার কারণে করোনা ভাইরাস হয় তা বায়ু বাহিত হয়ে সংক্রমণের সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও এপ্রিল মাসে ল্যানসেট মেডিক্যাল জার্নালের একটি রিপোর্টে এই বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রত্যাখ্যান করে বলা হয়েছিল ভাইরাসটি বায়ু বাহিত রোগজীবাণু নয়।

বায়ু বাহিত ভাইরাস

বায়ু বাহিত ভাইরাস

গত বছর কোভিড-১৯ মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকেই বেশিরভাগ গবেষক ও বিশেষজ্ঞদের মত ছিল যে কোভিড-১৯ বায়ু বাহিত নয় এবং একমাত্র আক্রান্ত ব্যক্তির শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে ছিটে আসা কয়েক ফোঁটা এই সংক্রমণের কারণ হতে পারে। তবে এখন এই বিশ্বাসটি পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছেন ভায়রোলজিস্ট এবং ইমুউনোলজিস্টরা, তাঁরা এখন জানাচ্ছেন যে বায়ু বাহিত না হলে তা এত বৃহৎ পরিসরে সংক্রমণ ঘটাতো না। সাম্প্রতিকতম এক বিবৃতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু বলেছে, ‘‌বর্তমান প্রমাণ বলছে, এই ভাইরাস প্রধানত একে-অপরের সংস্পর্শে আসলে, ১ মিটারের ব্যবধানের মধ্যে হতে পারে। একজন ব্যক্তি তখনই সংক্রমিত হতে পারেন যখন তিনি কোনও সংক্রমণ ব্যক্তির চোখ, নাক বা মুখ থেকে ছেটা ফোঁটা তাঁর শরীরে প্রবেশ করে।'‌

নতুন ভ্যারিয়ান্ট এক ঘণ্টার মতো বায়ুতে থাকে

নতুন ভ্যারিয়ান্ট এক ঘণ্টার মতো বায়ুতে থাকে

শ্রীলঙ্কার গবেষকরা দাবি করেছেন যে করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়ান্ট প্রায় এক ঘণ্টার মতো বায়ুতে থাকতে পারে। এই দ্বীপের শীর্ষ ইমুউনোলজিস্ট নীলিকা মালাভিগে এ বছরের এপ্রিলে বলেছিলেন, ‘নতুন স্ট্রেইনটি বায়ু বাহিত, এই ভাইরাসের ফোঁটাগুলি প্রয়া একঘণ্টা বায়ুতে থাকে।'‌‌ বৈজ্ঞানিক ব্যাখায় মার্কিনি সিডিসি জানিয়েছে যে সার্স-কোভ-২ কীভাবে সংক্রমণ হচ্ছে তা বোঝার বিষয়টি পরিবর্তিত হওয়ার পরও এই সংক্রমণকে প্রতিরোধ করার উপায় সেভাবে হয়নি। এর অর্থ হল কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে টিকাকরণের পরও এই ভাইরাস থেকে দূরে থাকার সেরা উপায় হল মাস্ক পরে থাকা (‌২টো মাস্ক একসঙ্গে)‌, হাত ধোওয়া বারংবার ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা। সিডিসি এও বলেছে, ‘সার্স-কোভ-২ সংক্রমণ শ্বাস-প্রশ্বাসের ফোঁটা, মিউকোস মেমব্রান্সে ভাইরাস জমা হওয়া এবং হাতের সংস্পর্শে এই করোনা ভাইরাস সংক্রমণকে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়েছে।'‌

 তিনভাবে সংক্রমণ

তিনভাবে সংক্রমণ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ মেডিক্যাল বডি জানিয়েছেন যে শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে করোনা ভাইরাসের ফোঁটা সংক্রমণের প্রধান মাধ্যম। এটা তিনভাবে হতে পারে:‌

❑‌ শ্বাস-প্রশ্বাস ও বায়ু বাহিত কণাগুলির খুব সূক্ষ্ম ফোঁটা শরীরের ভেতরে গেলে

❑‌ সরাসরি ছিঁটে এবং ফোঁটার দ্বারা মুখ, নাক, বা চোখের মিউকোস মেমব্রান্সে ভাইরাসের জমা হওয়া

❑ দূষিত হাতে মিউকোস মেমব্রান্স স্পর্শ করা

টিকা স্বত্ব তুলে নেওয়ার ক্ষেত্রে ধীরে চলো নীতি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সিদ্ধান্তে বাড়ছে ধোঁয়াশাটিকা স্বত্ব তুলে নেওয়ার ক্ষেত্রে ধীরে চলো নীতি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সিদ্ধান্তে বাড়ছে ধোঁয়াশা

 শ্বাসযন্ত্রের তরল পদার্থ

শ্বাসযন্ত্রের তরল পদার্থ

একজন ব্যক্তি নিঃশ্বাস নেওয়ার সময় শ্বাসযন্ত্রের তরল পদার্থ বাইরে বেরিয়ে আসে। এই ফোঁটাগুলির মাধ্যমেই একটি সংক্রমিত ব্যক্তি ভাইরাস সংক্রমণ করতে পারে,

সিডিসির মতে। বৃহত্তম ফোঁটাগুলি দ্রুত বায়ু থেকে বেরিয়ে যায়। তবে এই ফোঁটাগুলি দ্রুত শুকিয়ে যাওয়ার পর সূক্ষ্ম, খুব সূক্ষ্ম ফোঁটা এবং বায়ু বাহিত কণাগুলি এত ছোট যে তা বায়ুতে অনেকক্ষণ পর্যন্ত থাকতে পারে।

Positive Story : কলকাতার কোভিড ওয়ার্ডে পিপিই পরে নার্সের নাচ, ভাইরাল ভিডিও


English summary
SARS-COV-2, which causes the coronavirus, is an airborne infection
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X