• search

উজ্জ্বল মেক আপ, তবে মুখভর্তি দাড়ি-গোঁফ , মেয়ে সেজে পালাতে গিয়ে যে হাল হল জঙ্গিদের

  • By Sritama Mitra
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    ইরাকের মসুলে ইরাকি সেনার হাতে পরাস্ত হয়ে এখন রীতমতো ত্রস্ত আইএসাইএস-এর জঙ্গিরা। ইরাক ছেড়ে কোনও মতে পালানোর জন্য় তারা ক্রমাগত ছক কষছে। ইরাকি সেনার হাতে গ্রেফতারি এড়াবার জন্য় একের পর এক কৌশল গ্রহণ করছে জঙ্গিরা। তারই সাম্প্রতিকতম এক ঘটনা রীতিমত হাস্যকর ছিল!

    এমনিতে রক্তবন্যা বওয়ানো থেকে মহিলাদের ওপর অকথ্য অত্যাচারের জন্য শিরোনামে উঠে এসেছে আইএসাইএস। এবার সেই মহিলাদের ছদ্মবেশ ধরেই পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছিল কিছু আইএস জঙ্গি। সে কীর্তি করতে গিয়ে আজব পরিস্থিতে পড়ল তারা।

    উজ্জ্বল মেক আপ, তবে মুখভর্তি দাড়ি-গোঁফ , মেয়ে সেজে পালাতে গিয়ে যে হাল হল জঙ্গিদের

    পালানোর সময় এক জঙ্গির পরনে ছিল বোরখা , আর মুখ জুড়ে ছিল চড়া মেক আপ। লিপস্টিক, থেকে মাসকারা, কাজল জঙ্গির মেক আপে বাদ যায়নি কিছুই। নিজেকে মহিলা প্রতিপন্ন করার জন্য নিজের আইব্রোও প্লাক করিয়েছিল ওই ৩০ বছরের জঙ্গি। যাতে কোনওভাবেই তাকে ধরতে না পারে ইরাকি সেনা। তবে এই এতসব কিছু করেও গোঁফ-দাড়ি কামাতে ভুলো গেছিল সে। আর যত বিপত্তি তাতেই!

    সন্দেহজনক গতিবিধি দেখেই জঙ্গিকে চিনে ফেলে ইরাকি সেনা। ফলে ইরাকি সেনার চোখে আর ধুলো দেওয়া হয়নি জঙ্গির। মুহুর্তে গ্রেফতার হয় সে। এরপর তার ছবি প্রকাশিত হলে দেখা যায়, চোখে কাজল, ঠেঁটে লাল লিপস্টিক মেখেও, মুখে রয়েছে দাড়ি-গোঁফ! শেষমেশ যুদ্ধবাজ জঙ্গির এই হাস্যকর পরিণতি জায়গা করে নেয় সংবাদের পাতায়।

    English summary
    After losing their stronghold in Mosul, Islamic State fighters tried to dress up as a woman and caked their faces in makeup in a bid to avoid being caught by Iraqi authorities. One terrorist was pictured trying to disguise himself with bright red lipstick, mascara and foundation, purple eyeshadow, but he didn’t bother to clean his moustache and beard.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more