• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

আইএস প্রধান বাগদাদির দেহাবশেষ শেষপর্যন্ত কোথায় গেল! উঠে আসছে তথ্য

  • By Annanya
  • |

সিরিয়ার বুকে মার্কিন হামলায় আইএস প্রধান বাগদদির মৃত্যু , ঠিক যেন পাকিস্তানের অ্যাবোতাবাদে লাদেগের মৃত্যুর ঘটনাকে উস্কে দিয়েছে। এক বিধ্বংসী হামলায় মার্কিন সেনা তৎপর হতেই সুইসাইড ভেস্ট নিয়ে আত্মহত্যার পরথ বেছে নেয় বিশ্বের অন্যতম কুখ্য়াত জঙ্গি নেতা আবু বকর অল বাগদাদি। তবে শেষ পর্যন্ত তার দেহাবশেষ কোথায় তা নিয়ে উঠে আসছে রিপোর্ট।

 কোথায় গেল বাগদাদির দেহাবশেষ?

কোথায় গেল বাগদাদির দেহাবশেষ?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ট্রাম্প প্রশাসনের সূত্রে বাগদাদির দেহাবশেষ সম্পর্কে একাধিক তথ্য প্রথমে উঠছিল। এরপর পেন্টাগনের তরফে গোটা বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশা কাটানো হয়। জেনারেল মার্ক মিলেই জানিয়ে দিয়েছেন, মার্কিন সেনার কনফ্লিক্ট অফ আর্মস নিয়ে যে নীতি মেনে চলে, সেই নীতি অনুযায়ীই বাগদাদির শেষকৃত্য করা হয়েছে।

 সমুদ্রে ফেলা হয়েছে বাগদাদির দেহাবশেষ!

সমুদ্রে ফেলা হয়েছে বাগদাদির দেহাবশেষ!

পেন্টাগন সূত্রের দাবি, সমুদ্রে ফেলে দেওয়া হয়েছে কুখ্যাত জঙ্গি বাগদাদির দেহাবশেষ। উত্তর পশ্চিম সিরিয়াতে ব্যাপক মার্কিন অভিযানের পর বাগদাদিকে গোপন ডেরা থেকে বার করে নিশানা করে মার্কিন সেনা। এরপরই আত্নঘাতী হয় কুখ্যাত জঙ্গি।

তবে মৃত্যুর প্রমাণ রেখেছে মার্কিন সেনা

তবে মৃত্যুর প্রমাণ রেখেছে মার্কিন সেনা

ঠিক যেভাবে লাদেনকে হত্য়ার পর মার্কিন সেনা তার দেহ সমুদ্রে ভাসিয়ে দেয়, সেভাবেই বাগদাদি নিধনের পরও একইভাবে মার্কিন সেনা আইএস জহ্গির দেহ সমুদ্রে ভাসিয়ে দেয়। তবে প্রমাণ হিসাবে বাগদাদির দেহাবশেষ থেকে ডিএনএ রেখে দিয়েছে মার্কিন সেনা। আর সেই ডিএনএ-ই বাগদাদির মৃত্যুর প্রমাণ্য হিসাবে তুলতে ধরতে চায় মার্কিন প্রশাসন।

English summary
ISIS leader Abu bakar al Baghdadi's body disposd in sea, claims Report .The remains of ISIS chief Abu Bakr al-Baghdadi were buried at sea by the US military, reported AFP quoting a Pentagon source who didn’t divulge other details. Chairman of the Joint Chiefs of Staff .
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more