• search

হাফিজ সঈদের গৃহবন্দি থাকার মেয়াদ বাড়াল পাকিস্তান

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    ইসলামাবাদ, ১মে : ২৬/১১ মুম্বই হামলার মূলচক্রী তথা পাক জঙ্গিনেতা হাফিজ সঈদের গৃহবন্দি থাকার মেয়াদ আরও বাড়িয়ে দিল পাকিস্তান। এই মেয়াদ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে আরও ৯০ দিনের জন্য।[হাফিজ সঈদ পাকিস্তানের জন্য একটি হুমকি: পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রী]

    উল্লেখ্য রবিবারই তার গৃহবন্দী হওয়ার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল। পাকিস্তানের সন্ত্রাসবিরোধী আইনের আওতায় তাকে কিছু মাস আগে পাকিস্তানে গৃহবন্দি করে রাখা হয়। সেই থেকে গৃহবন্দি হাফিজ। এই মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে।[জঙ্গি সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়াকে পাকিস্তানের রাজনৈতিক দল হিসাবে গড়ার পরিকল্পনা]

    হাফিজ সঈদের গৃহবন্দি থাকার মেয়াদ বাড়াল পাকিস্তান

    পাকিস্তানের পাঞ্জাব সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, সেদেশের সন্ত্রাসদমন আইনের আওতায় ' হাফিজ সঈদ , প্রফেসার মালিক জাফার ইকবাল, আব্দুর রহমান আবিদ, সহ আরও ২ জনকে গৃহবন্দী করে রাখআর মেয়াদ বাড়ানো হয় আগামী ৯০ দিনের জন্য।[(ভিডিও) গৃহবন্দি হওয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদী-ডোনাল্ড ট্রাম্পের বন্ধুত্বকে দায়ী করছে হাফিজ সঈদ]

    মূলত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্প প্রশাসন সন্ত্রাসবাদ দমনে কড়া মনোভাব দেখানোর পর থেকেই হাফিজ ইস্যুতে কূটনৈতিক চাপে পড়ে যায় পাকিস্তান। তারপর তড়িঘড়ি গত ৩০ জানুয়ারি জামাত-উদ-দাওয়া প্রদান হাফিজকে গৃহবন্দি করে রাখে পাকিস্তান। ট্রাম্প প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ার ভয়েই মূলত পাকিস্তান এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে ধারণা অনেকের।

    English summary
    Pakistan has extended the house arrest of Hafiz Saeed by another 90 days. The decision to extend the house arrest of the chief of the Lashkar-e-Tayiba and the Jammat-ud-Dawa was taken on Sunday under the anti-terrorism act and the notification for it will be issued soon, an official of the Punjab government's Home Department said.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more