• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

পরিবেশ বিষয়ক পুরস্কারকে 'না' গ্রেটার, জেনে নিন কারণ

সুইডেনের পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ক আন্দোলনকর্মী গ্রেটা থানবার্গ পরিবেশবাদী পুরস্কারে 'না' জানালেন। পুরস্কার গ্রহণে অস্বীকৃতি জানিয়ে এক ইনস্টাগ্রাম বিবৃতিতে আবারও বিশ্ব নেতাদের পরিবেশ রক্ষার ক্ষেত্রে সচেতন হতে বললেন তিনি। ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তিনি লেখেন, জলবায়ু আন্দোলনের জন্য পুরস্কার নয়, প্রয়োজন ক্ষমতায় থাকা মানুষের বিজ্ঞানের কথা শোনা।

রাষ্ট্রসংঘে গ্রেটার প্রশ্ন

রাষ্ট্রসংঘে গ্রেটার প্রশ্ন

এর আগে গতমাসেই রাষ্ট্রসংঘের পরিবেশ বিষয়ক সামিটে বিশ্ব নেতাদের বিরুদ্ধে পরিবেশ রক্ষা ও আবহাওয়া পরিবর্তন সম্পর্কে সচেতন না হওয়ায় প্রশ্ন তুলেছিলেন। 'আপনাদের সাহস হয় কী করে?' গ্রেটার এই প্রশ্নে তোলপাড় হয় সারা বিশ্ব। গ্রেটা বলে, 'এটা সম্পূর্ণ ভুল হচ্ছে। আমার এখানে থাকবার কথা নয়। আমার এখন সমুদ্রের ওপারে স্কুলে থাকবার কথা। আপনারা আমাদের মতো স্বল্প বয়সীদের কাছে আসেন। কোন সাহসে আসেন? আপনারা আমার স্বপ্ন কেড়েছেন নিজেদেরর ভুয়ো প্রতিশ্রুতিগুলি দিয়ে।'

View this post on Instagram

I have received the Nordic Council’s environmental award 2019. I have decided to decline this prize. Here’s why: “I am currently traveling through California and therefore not able to be present with you today. I want to thank the Nordic Council for this award. It is a huge honour. But the climate movement does not need any more awards. What we need is for our politicians and the people in power start to listen to the current, best available science. The Nordic countries have a great reputation around the world when it comes to climate and environmental issues. There is no lack of bragging about this. There is no lack of beautiful words. But when it comes to our actual emissions and our ecological footprints per capita - if we include our consumption, our imports as well as aviation and shipping - then it’s a whole other story. In Sweden we live as if we had about 4 planets according to WWF and Global Footprint Network. And roughly the same goes for the entire Nordic region. In Norway for instance, the government recently gave a record number of permits to look for new oil and gas. The newly opened oil and natural gas-field, ”Johan Sverdrup” is expected to produce oil and natural gas for 50 years; oil and gas that would generate global CO2 emissions of 1,3 tonnes. The gap between what the science says is needed to limit the increase of global temperature rise to below 1,5 or even 2 degrees - and politics that run the Nordic countries is gigantic. And there are still no signs whatsoever of the changes required. The Paris Agreement, which all of the Nordic countries have signed, is based on the aspect of equity, which means that richer countries must lead the way. We belong to the countries that have the possibility to do the most. And yet our countries still basically do nothing. So until you start to act in accordance with what the science says is needed to limit the global temperature rise below 1,5 degrees or even 2 degrees celsius, I - and Fridays For Future in Sweden - choose not to accept the Nordic Councils environmental award nor the prize money of 500 000 Swedish kronor. Best wishes Greta Thunberg”

A post shared by Greta Thunberg (@gretathunberg) on

১৬ বছর বয়সেই পরিবেশ বিষয়ক আন্দোলনের মুখ

মাত্র ১৬ বছর বয়সে গ্রেটা থানবার্গ বিশ্বে চলমান জলবায়ু আন্দোলনের অন্যতম নেতাদের একজনে পরিণত হয়েছেন। ২০১৮ সালের অগাস্টে প্রতি শুক্রবার সুইডেনের পার্লামেন্টের সামনে একটি প্লাকার্ড নিয়ে অবস্থান করতেন গ্রেটা। সেখান থেকেই আলোচনায় আসেন তিনি। প্লাকার্ডে লেখা থাকত, 'জলবায়ুর জন্য স্কুলে ধর্মঘট।' এই কিশোর জলবায়ু আন্দোলনকর্মীর ডাকে 'ফ্রাইডেজ ফর ফিউচার' কর্মসূচিতে সাড়া দেন বিশ্বের কয়েক লাখ মানুষ।

পরিবেশ বিষয়ক বার্ষিক পুরস্কার নিতে অস্বীকার গ্রেটার

পরিবেশ বিষয়ক বার্ষিক পুরস্কার নিতে অস্বীকার গ্রেটার

সম্প্রতি একটি আঞ্চলিক আন্তঃসংসদীয় সহযোগিতা সংস্থা নরডিক কাউন্সিল স্টকহোমে তাঁকে একটি সম্মাননা দেয়। সুইডেন ও নরওয়তে তার ভূমিকার জন্য সংস্থাটির পরিবেশ বিষয়ক বার্ষিক পুরস্কার তাকে প্রদান করার ঘোষণা দেয়া হয়। এই পুরস্কারের অর্থমূল্য প্রায় ৫২ হাজার ডলার। তবে তিনি সেই নিতে অস্বীকার করেন।

English summary
Greta Thunberg rejected environmental prize after lashing out to world leaders
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more