• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যায় মানবিক বিপর্যয়ের আভাস

  • By Bbc Bengali
প্রবল বৃষ্টির মধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে ছুটছে সিলেটের বন্যাক্রান্ত মানুষ
Getty Images
প্রবল বৃষ্টির মধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে ছুটছে সিলেটের বন্যাক্রান্ত মানুষ

সিলেটে বন্যার যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তাতে করে সেখানে মানবিক বিপর্যয়কর পরিস্থিতির আভাস তৈরি হয়েছে। সুনামগঞ্জের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

সিলেটের বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে বিপুল সংখ্যক মানুষ আশ্রয় নিয়েছে।

সিলেট শহরের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যার পানি প্রবেশ করায় তাদের কাছে খাদ্যদ্রব্য পৌঁছে দেয়াও কঠিন হয়ে পড়েছে।

আরো পড়ুন:

মাইকিং করে উদ্ধারের চেষ্টা:

সিলেট উপশহরে কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবী বুক-সমান পানিতে নেমে মাইকিং করে এ গলি সেই গলি ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সঙ্গে করে তারা নিয়ে যাচ্ছেন পানির বোতল।

এই দলের একজন সুলায়মান মিয়া বিবিসিকে বলেন যে তার এলাকা একতলা সমান পানিতে ডুবে গেছে। দুই তিন তলায় কেউ আছেন কি না তারা সেটা খুঁজে দেখছেন এবং তাদেরকে তিনি অন্তত খাবার পানি দিয়ে সাহায্য করতে চান।

"এই এলাকাতে বলা যায় বেশ বিত্তবানরা থাকেন। এখানে দুই তলা থেকে চার তলা পর্যন্ত বাড়িতে মানুষ আটকে আছে। যারা বারান্দা থেকে আমাদের কাছে পানি চাচ্ছেন তাদেরকে দিচ্ছি। কিন্তু আমাদের একার পক্ষে একাজ করা সম্ভব না। আর বেশি দূর যেতেও পারবো না। পানির গভীরতা সেখানে আরো বেশি," বলেন তিনি।

একথার পরেই তার ফোনের লাইন কেটে যায়। সুনামগঞ্জের মত সিলেটেও এখন মোবাইলের নেটওয়ার্ক পাওয়া যাচ্ছে, তবে ক্ষণিকের জন্য।

একারণে কে কোথায় আশ্রয় নিয়েছেন তার খবর নিতে পারছেন না পরিবার বা আত্মীয় স্বজনরা।

আটকা পড়েছেন অনেকে

সিলেটের বাইরে থেকে সুনামগঞ্জের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে সিলেটেই আটকে পড়েছেন এমন অনেকে। তারা তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না।

সুনামগঞ্জের বহু এলাকার বাসিন্দাদের জন্য চলাফেরার একমাত্র উপায় এখন নৌকা
Getty Images
সুনামগঞ্জের বহু এলাকার বাসিন্দাদের জন্য চলাফেরার একমাত্র উপায় এখন নৌকা

তাদের একজন বলেন, "আমার স্ত্রী, দুই সন্তান সবাই সুনামগঞ্জে। আমি বন্যার কথা শুনে ঢাকা থেকে আসছি। এখন তো সুনামগঞ্জে যেতে পারছি না। মোবাইলে নেটওয়ার্ক নেই। আমি জানি না তারা কোথায় আছে।"

আরেকজন বলেন, " কুমিল্লা থেকে আসছি। এখনতো আর কোথাও যেতে পারছি না। পরিবার কোথায় আশ্রয় নিয়েছে তার খোঁজ এখনও পাই নি।"

সাংবাদিকরা জানাচ্ছেন, সিলেট থেকে সাধারণ মানুষের সুনামগঞ্জ যাওয়ার কোন উপায় নেই। শুধু উদ্ধারকর্মী ও ত্রাণকর্মীরা নৌকাযোগে যেতে পারছেন সেখানে।

জেলা প্রশাসক সীমিত আকারে মোবাইল নেটওয়ার্ক চালু হয়েছে বলে দাবি করলেও, সুনামগঞ্জের কয়েকজন বাসিন্দার সাথে কথা বলার চেষ্টা করে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

আরো পড়ুন:

সিলেট শহরের একজন বাসিন্দা থৌদাম বৌলি বলেন, "সুনামগঞ্জ এবং সিলেটের আশেপাশের এলাকার মানুষজন এসে আমাদের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। আমাদের এলাকায় এখনো পানি আসে নি। তবে আমরা বাইরে বের হয়ে শুকনা খাবার বা নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারছি না। কারণ দোকান সব বন্ধ, আর যেটুকু পাওয়া যাচ্ছে সেগুলো অনেক দাম। আমার জীবনে আমি এমন বিপর্যয়কর পরিস্থিতি দেখিনি কখনো"

মাত্র এক মাস আগে ভারি বৃষ্টিপাতের পর সিলেটে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল
Getty Images
মাত্র এক মাস আগে ভারি বৃষ্টিপাতের পর সিলেটে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল

আশ্রয়কেন্দ্রে ৭০ হাজার মানুষ

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন জানিয়েছেন, শহর থেকে পানির উচ্চতা কিছুটা কমলেও জেলার ৯০ শতাংশ এখনও পানির নিচে। জেলার ৭০ হাজারের মতো মানুষ ২২০টি আশ্রয় কেন্দ্রে রয়েছেন।

কর্মকর্তারা বলছেন হাওর ও অন্যান্য প্রত্যন্ত এলাকার যারা নিরাপদ দূরত্বে এখনো সরে আসতে পারেন নি, বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে সেনাবাহিনী।

শুক্রবার মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার পর সেখানে বিশেষ ব্যবস্থায় সীমিত জায়গায় মোবাইল নেটওয়ার্ক চালু করা সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

ইউক্রেন যুদ্ধ বছরের পর বছর চলতে পারে, সতর্ক করছেন পশ্চিমা নেতারা

রোহিঙ্গাদের 'বাড়ি চলো’ প্রচারণা, বিভিন্ন শিবিরে সমাবেশ

রোজেলা, চুকাই, চুকুরি বা মেস্তা নামের এক ফলের যত গুন

ভারতীয় সেনাবাহিনীতে নিয়োগের নতুন নিয়মের বিরুদ্ধে কেন বিক্ষোভ হচ্ছে

BBC

English summary
Floods in Sylhet and Sunamganj hint at humanitarian catastrophe in bangladesh
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X