• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ক্যাপিটাল হিলে ভেতরে হিংসা, ট্রাম্পের অপসারণের তোড়জোর শুরু, বাইডেনের শপথ নিয়ে বাড়তি সতর্কতা

ক্যাপিটাল বিল্ডিংয়ের ভেতরে ঢুকে ভাঙচুর। অগ্নিসংযোগ। আমেরিকার ইতিহাসে প্রথম ঘটেছে এই ঘটনা। আর উস্কানির নেপথ্যে রয়েছেন স্বয়ং বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই ঘটনা কিছুতেই মেনে নিতে রাজি নয় মার্কিন সেনেট। ২০ তারিখের আগেই ট্রাম্পের ইম্পিচমেন্টের প্রক্রিয়া শুরু করার তোরজোর শুরু হয়েছে। এই প্রক্রিয়া কার্যকর হলে ট্রাম্পই হবে প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট যাঁকে ২ বার ইম্পিচমেন্টের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হয়েছে।

ট্রাম্পের ইম্পিচমেন্টের তোরজোর

ট্রাম্পের ইম্পিচমেন্টের তোরজোর

মার্কিন সেনেটের সিংহভাগই এখন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। ক্যাপিটাল বিল্ডিংয়ে হামলার ঘটনার পর তো সেই রাগ আরও বেড়ে গিয়েছে। ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত ট্রাম্পের কার্যকালের মেয়াদ রয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে। তারপরেই সেই জায়গায় বসবেন নব নির্বাচিত জো বাইডেন। তার আগে ফের আমেরিকাকে অশান্ত করে তুলতে পারেন ডোনাল্ড এমন আশঙ্কা রয়েছে। তাই আগে থেকেই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ইম্পিচমেন্টের প্রক্রিয়া শুরু করতে চাইছে মার্কিন সেনেট। এমনচা হলে ট্রাম্পই হবেন প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি ক্ষমতায় থাকাকালীনই ২ বার ইম্পিচমেন্টেপ মুখে পড়েছেন।

ক্যাপিটাল বিল্ডিংয়ে হামলা

ক্যাপিটাল বিল্ডিংয়ে হামলা

নজিরবিহীন ঘটনা ঘটেছে আমেরিকায়। ক্যাপিটাল বিল্ডিয়ং ঢুকে হামলা চালিয়েছেন ট্রাম্পের সমর্থকরা। জানলার কাচ ভাঙা থেকে শুরু করে আগন লাগানোর চেষ্টা। তচনচ করার চেষ্টা চলেছে ক্যাপিটাল বিল্ডিং। এই সবই হয়েছে আমেরিকার বিদায়ী প্রেসিডেন্টের মদতে। তাঁর একের পর এক উস্কানি মূলক ফেসবুক আর টুইটে আগুন ছড়িয়েছেগোটা আমেরিকায়। হিংসায় ৪ জন মারা গিয়েছেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওয়াশিংটনে জরুরি অবস্থা জারি করতে হয়েছে।

ট্রাম্পের টুইটার, ফেসবুক বন্ধ

ট্রাম্পের টুইটার, ফেসবুক বন্ধ

হিংসায় উস্কানি ছড়াতে পারে এই আশঙ্কায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়। মার্ক জুকারবার্গ নিজেই সেকথা জানিয়েছেন। তারপরের পদক্ষেপটি করে টুইটার। ট্রাম্পের ২টি টুইটার অ্যাকাউন্টও বরাবরের মতো সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়। জানা গিয়েছে যেদিন ক্যাপিটাল বিল্ডিংয়ে হামলা হচ্ছিল সেদিন পার্টি করছিল ডোনাল্ড ট্রাম্প। ক্যাপিটাল বিল্টিংয়ে হামলা কারীদের সত্যিকারের দেশপ্রেমী বলে মন্তব্য করেছেন ট্রাম্প কন্যা।

বাইডেনের শপথে হিংসার সম্ভাবনা

বাইডেনের শপথে হিংসার সম্ভাবনা

বাইডেনের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠান এগিয়ে আসছে। সেদিন ফের হিংসা ছড়াতে পারে আমেরিকায় এমনই আশঙ্কা করা হচ্ছে। ওয়াশিংটানের মেয়র সেদিন এই শহরকে এড়িয়ে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন বাইডেন সমর্থকদের। সেকরাণে আগেই শহরে জরুরি অবস্থা জারি করার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু ট্রাম্প এখনও এই নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানাননি। ১০ থেকে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত সবরকম জমায়েত নিষিদ্ধ করার কথা বলা হয়েছে। এরই মধ্যে ট্রাম্পকে ইম্পিচমেন্টের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে ডেমোক্র্যাটরা।

English summary
Donald Trump's removal process may start soon
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X