• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ক্ষতিগ্রস্ত মানবজাতি, লুপ্ত লক্ষাধিক বন্যপ্রাণ! একনজরে ২০২০ সালের কিছু বিধ্বংসী প্রাকৃতি দুর্যোগ

  • |

শুরু থেকেই বিষাদে মোড়া ২০২০। করোনা থেকে শুরু করে একাধিক খ্যাতনামা বিয়োগ বা প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঘনঘটা, সব মিলিয়ে চলতি বছরে অনেকটাই বদলেছে মানুষের জীবনযাত্রা এমনকী যোগাযোগের পরিভাষাও। চলতি বছরেই ঘূর্ণিঝড়, দাবানল, বন্যার পাশাপাশি পঙ্গপালের হানার মুখোমুখি হয় ভারত সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ। ফলত ২০২০ সাল যে মানবসভ্যতার ইতিহাসের পাতায় কালো দাগে চিহ্নিত করা থাকবে, তা বলাই বাহুল্য। আসুন ফিরে দেখে নেওয়া যাক সেইসব দুর্যোগের স্মৃতি, যা উস্কে দেবে ২০২০-এর হাহাকার ভরা বিস্মৃতি।

ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রকোপ

ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রকোপ

১৯৯৯-এর পর বঙ্গোপসাগরের সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক ঘূর্ণিঝড় হিসেবে ২০২০-এর মে মাসে মাসে বাংলায় আছড়ে পরে আমফান। ঘূর্ণিঝড়ের জেরে মারা যান ৮৬ জন, দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুৎ ও পানীয় জল সরবরাহ ব্যাহত হয়। কলকাতা, হুগলী, হাওড়া ও আশপাশের জেলার সকল পরিকাঠামো ও যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ে। বাংলাদেশে যাওয়ার আগে উড়িষ্যার প্রায় ৪৫ লক্ষ মানুষকে ঘরছাড়া করে যায় আমফান।

 তুর্কির ভূমিকম্পে ১১৬ জনের মৃত্যু

তুর্কির ভূমিকম্পে ১১৬ জনের মৃত্যু

এ বছরেই তুর্কির ইজমির শহরের নিকট এগেয়ান সাগরে ভূমিকম্পের উৎপত্তি হয়। ভূমিকম্পের উপকেন্দ্রের দক্ষিণে অবস্থিত সামোস দ্বীপ সহ ইজমিরে মৃত্যু হয় ১১৬ জনের, আহত হন ১,০৩৫ জন। মার্কিন ভূতাত্বিক কেন্দ্রের নিরিখে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল প্রায় ৭.০। যদিও অন্যান্য সংস্থার মতে এর মাত্রা ছিল আরও কম। ভূমিকম্পের পর একাধিক আফটার শকে সমস্যা বাড়ে। প্রায় ৪৫টি শকে তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে ইস্তানবুল সহ তুর্কির একাংশ। তুর্কির পাশাপাশি ২৩শে জুন মেক্সিকোতেও রিখটার স্কেলে প্রায় ৭.৪ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে বহুতল ভেঙে পড়ে। মেক্সিকো সরকার অত্যন্ত তৎপর ভঙ্গিতে সুনামির আগাম সতর্কতা জারি করে।

অসমের ভয়াবহ বন্যা

অসমের ভয়াবহ বন্যা

এই বছরেই জুলাই মাসেই ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে অসম। ভেসে যায় ঘরবাড়ি-জীবজন্তু থেকে মানুষ, সবকিছুই। বন্যার জেরে প্রায় ১৯.৮১ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হন, মারা যান ১০৫ জন। অসমের দুর্যোগ মোকাবিলা পর্ষদের সূত্রে জানা যায়, ৪২,২৭৫ জন ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে প্রায় ২৩৬টি ক্যাম্পে স্থানান্তর করা হয়। অন্যদিকে, বন্যার ভয়াবহতা পিছু ছাড়েনি অরণ্যকেও। কাজিরাঙা জাতীয় উদ্যানে ১৩৭টি বন্যপ্রাণী মারা যায়, যার মধ্যে ১৪টি একশৃঙ্গ গন্ডার। যদিও ১৬৩টি গন্ডারকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। সেপ্টেম্বরে পুনরায় বন্যার জেরে অসমে নতুন করে ১ জন মারা যান, ক্ষতিগ্রস্ত হন ৩৪,০০০ মানুষ। অসমের পাশাপাশি জাপানে অতিবৃষ্টির কারণে বন্যা দেখা দেয়। একই সাথে বিধ্বংসী বন্যার জেরে ভূমিধ্বস হয় মারা যান আরও ৪৪ জন।

ক্যালিফোর্নিয়া ও অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে দগ্ধ বনজীবন

ক্যালিফোর্নিয়া ও অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে দগ্ধ বনজীবন

বিশ্ব উষ্ণায়নের কারণে এ বছর প্রবল তাপপ্রবাহ সহ খরা ও বজ্রপাতের ভয়ংকর দুর্যোগের মুখে পড়ে গোটা ক্যালিফোর্নিয়া। ফল হিসেবে দাবানলের গ্রাসে চলে যায় প্রায় ৪০ লক্ষ হেক্টর। মার্কিন সূত্রের মতে, বিধ্বংসী আগুনে প্রায় ৩১ জন মারা যান ও প্রায় ৮,৪৫৪টি বাড়ি ও অন্যান্য সম্পত্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অন্যদিকে ক্যালিফোর্নিয়ার সম্পূর্ণ বিপরীত প্রান্তে অবস্থিত অস্ট্রেলিয়াও জানুয়ারিতে ভয়ঙ্কর দাবানলের সম্মুখীন হয়। আন্তর্জাতিক সূত্রের খবর, দাবানলে প্রায় ১.২ কোটি হেক্টর অঞ্চল পুড়ে যায়, মারা যান ৩৩ জন নাগরিক ও ১০০ কোটি বন্যজন্তু। দাবানলের বীভৎসতার কারণে প্রধানমন্ত্রী এই সময়কে 'কালো গ্রীষ্ম' বলে অভিহিত করেন। ৯ই জানুয়ারি থেকে মাত্র একসপ্তাহের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার ক্যাঙ্গারু দ্বীপ জ্বলে যায়, মারা যায় বিরল প্রজাতির লক্ষাধিক ক্যাঙ্গারু।

 পঙ্গপালের আক্রমণে নাজেহাল হয় ভারত

পঙ্গপালের আক্রমণে নাজেহাল হয় ভারত

করোনা লকডাউনে যখন এমনিতেই থমকে কৃষিকাজ, তার মধ্যেই গোদের উপর বিষফোঁড়ার মত 'উড়ে' এসে জুড়ে বসে পঙ্গপাল। কেন্দ্রের সূত্রে খবর, জুন-জুলাই মাসে লক্ষাধিক পঙ্গপালের ভিড়কে তাড়ানোর জন্য ভারত সরকারের উদ্যোগে ব্রিটেন থেকে ৫টি বিশেষ স্প্রে-প্রযুক্তি এনে তা বায়ুসেনার বিমানে বসানো হয়। সরকারি তৎপরতা ও ড্রোন প্রযুক্তির সাহায্যে অবশেষে আগত খাদ্য সমস্যা থেকে মুক্তি পায় ভারত।

 আমাজনে বিধ্বংসী আগুন

আমাজনে বিধ্বংসী আগুন

এদিকে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরেই বিধ্বংসী দাবানলের গ্রাসে চলে যায় ব্রাজিলের আমাজন। বিধ্বংসী আগুনে ছারখার হয়ে যায় 'পৃথিবীর ফুসফুস'। ব্রাজিল প্রশাসনের সূত্রে খবর, সেপ্টেম্বরের প্রথম একসপ্তাহের মধ্যেই অরণ্যের ৮,৩৭৩ প্রান্ত গ্রাস করে আগুনের লেলিহান শিখা। ব্রাজিলের বনদপ্তরের খবর বলছে, ৯ই সেপ্টেম্বরের পর থেকে দাবানল ২৭% অরণ্যকে ভস্মীভূত করেছে। সেপ্টেম্বরের উপগ্রহ চিত্র অনুযায়ী, আমাজনের ভয়ঙ্কর দাবানলের প্রায় ৩২,০১৭টি হটস্পট মেলে।

কলকাতাঃ কেন্দ্রের স্মার্ট সিটি প্রকল্পের টাকা সময় মতো আসেই না,জিতেন তো সবই জানে, মন্তব্য ফিরহাদের

কোভিড অতিমারির বছরে, দেখে নিন সোশ্যাল মিডিয়ায় হটকেকের মতো ভাইরাল হওয়া ভিডিওর সম্ভার

English summary
At a glance, some of the most devastating natural disasters of 2020
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X