• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

চলন্ত বিমানেই মৃত্যু করোনা আক্রান্ত মহিলার! প্রশ্ন উঠছে মার্কিন বিমান সংস্থার নিরাপত্তা নিয়ে

  • |

করোনায় কাবু গোটা বিশ্ব। এখনও কোনও দেশীয় সেই অর্থে স্বাভাবিক হয়নি আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল। এদিকে এর মধ্যে আমেরিকার বিমান সংস্থা স্পিরিট এয়ারলায়েন্সের একটি চলন্ত উড়ানেই ঘটল চাঞ্চল্যকর ঘটনা। বিমানের মধ্যেই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন এক মহিলা যাত্রী।

বিমানের মধ্যেই শুরু হয় তীব্র শ্বাস কষ্ট

বিমানের মধ্যেই শুরু হয় তীব্র শ্বাস কষ্ট

ঘটনাটি ঘটেছিল গত জুলাই মাসের ২৪ তারিখ। বর্তমানে এই সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট সামনে এনেছে সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থা। সূত্রে খবর, ডালাস-ফোর্ট ওয়ার্থ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাওয়ার জন্য লস ভেগাস থেকে স্পিরিট এয়ারলায়েন্সের বিমানে চড়েন ৩৮ বছরের ওই মহিলা। যদিও সেই সময় তার শরীরে কোনও করোনা উপসর্গ দেখা যায়নি। কিন্তু বিমান চলতে শুরু করলে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

জরুরি ভিত্তিতে অবতরণ করও বাঁচানো যায়নি মহিলাকে

জরুরি ভিত্তিতে অবতরণ করও বাঁচানো যায়নি মহিলাকে

পরবর্তী ওই মহিলার ভয়ঙ্কর শ্বাসকষ্ট শুরু হলে জরুরি ভিত্তিতে বিমানটিকে নিউ মেক্সিকোর আলবুকার্ক ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করানো হয়। তারপরেই বিমান বন্দরের স্বাস্থ্য কর্মীরা জরুরী ভিত্তিতে তার প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করলেও তাতে বিশেষ ফল মেলেনি। বিমান সংস্থার বয়ান অনুযায়ী সবরকম চেষ্টা করা হলেও অবতরণের কিছু সময়ের মধ্যেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

করোনা আক্রান্ত হয়েও কী ভাবে মিলল বিমানে প্রবেশাধিকার ?

করোনা আক্রান্ত হয়েও কী ভাবে মিলল বিমানে প্রবেশাধিকার ?

যদিও সেই সময়ে তার করোনা সংক্রমণের কথা জানা যায়নি বলেই খবর। পরবর্তীকালে এই ঘটনার তদন্ত চলাকালীন সময়ে ডালাস কাউন্টি বিচারকের কার্যালয়ের তরফে জানানো হয় বেশ কিছু গুরুতর মেডিক্যাল ট্রিটমেন্টের মধ্যে ছিলেন ওই মহিলা। এমনকী পুলিশি তদন্তেও একথা জানানো হয় বলে খবক। তারপরই সমস্ত রিপোর্ট যাচাই পর জানা যায় করোনার কারণেই আচমকা শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়াতে মৃত্যু হয়েছিল ওই মহিলার।

 প্রশ্ন উঠছে বাকী যাত্রীদের নিরাপত্তা নিয়েও

প্রশ্ন উঠছে বাকী যাত্রীদের নিরাপত্তা নিয়েও

এদিকে চলন্ত বিমানে করোনা আক্রান্তের মৃত্যু খবরে প্রশ্ন উঠছে বাকী যাত্রীদের নিরাপত্তা নিয়েও। কী ভাবে সমস্ত মেডিকেল রিপোর্ট যাচাই না করে ওই মহিলাকে বিমানে উঠতে দেওয়া হয়েছিল তা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন কেউ কেউ। যা নিয়ে রীতিমতো চাপে আমেরিকার নামজাদা বিমান পরিবহন সংস্থা স্পিরিট এয়ারলায়েন্স। এদিকে মহিলার মৃত্যু তার পরিবার ও বন্ধুদের প্রতি সমবেদনাও জানানো হয়েছে বিমান সংস্থার তরফে।

পরিযায়ী শ্রমিকদের ত্রাতা সোনু সুদ, কলকাতার পুজো মণ্ডপের থিম হলেন অভিনেতা

English summary
coronavirus infected woman dies on onboard flight questions are being raised about safety of us airlines
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X