• search

ব্যবস্থা না নিলে পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে দেওয়ার হবে, কে দিল এমন হুমকি

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    পাকিস্তান যদি জঙ্গিদের নিরাপদ স্থান নিয়ে কোনও ব্যবস্থা না নেয়, তবে তাদের ধংস নিশ্চিত করতে যা যা ব্যবস্থা করতে হয়, তাই করবে তারা। এমনটাই হুমকি দিয়েছেন সিআইএ-র প্রধান।

    পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে দেওয়ার হুমকি

    আমেরিকার ডিফেন্স সেক্রেটারি জেমস ম্যাটিস-এর পাকিস্তান সফরের দিনদুয়েক আগেই এই মন্তব্য করেছেন সিআইএ-র ডিরেক্টর মাইক পম্পেও।

    পম্পেও জানিয়েছেন, সফরকালে ম্যাটিস পাকিস্তানকে খুব ভালভাবে বলবেন। তিনি বলেন, ডিফেন্স সেক্রেটারি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বার্তাও পাকিস্তানের বর্তমান শাসকদের হাতে তুলে দেবেন। কেননা ট্রাম্পও জঙ্গিদের বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন।

    পাকিস্তান যদি ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হয়, জঙ্গিদের স্থায়ী আস্তানা গুড়িয়ে দিতে যা যা ব্যবস্থা নিতে হয়, তাই তাই করবে আমেরিকা। এমনটাই জানিয়েছেন সিআইএ-র ডিরেক্টর।

    ইসলামাবাদে পৌঁছেই ম্যাটিস পাকিস্তানের সেনাকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এবং আফগানিস্তান নিয়ে কথা বলবেন।

    পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে দেওয়ার হুমকি

    আমেরিকা দীর্ঘ কয়েকবছর ধরে অভিযোগ করে আসছে, পাকিস্তান আফগান তালিবানদের আশ্রয় দিচ্ছে। আফগানিস্তানে হামলায় হাক্কানি নেটওয়ার্ককেও প্রশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ করেছিল আমেরিকা। এবছরের অগাস্টে, ট্রাম্প পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জঙ্গি গোষ্ঠীকে আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ করেছিলেন। আরও অভিযোগ ছিল জঙ্গিরা আমেরিকানদের মারার চক্রান্ত করছে।

    তারা পাকিস্তানকে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য কোটি কোটি বিলিয়ন ডলার দিচ্ছেন, একই সময়ে পাকিস্তান জঙ্গিদের আশ্রয় দিচ্ছে, যার বিরুদ্ধে লড়াই আমেরিকা। এই অবস্থার পরিবর্তন হওয়া দরকার বলে জানিয়েছেন সিআইএ-র ডিরেক্টর।

    English summary
    The CIA director said that the US defence secretary on his visit today will ask pakistan nicely, first to erase safe havens. If Pakistan still doesn't act, the CIA chief said they will take action to erase terror sanctuaries in Pakistan.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more