• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

২০১৮-য় বছরভর দেশবাসীর নজর ছিল এই ঘটনাগুলিতে, দেখুন একনজরে

২০১৮ সাল একেবারে প্রথম দিন থেকেই ঘটনাবহুল থেকেছে। দলিত বিক্ষোভ দিয়ে শুরু হয়েছিল। তারপরে একে একে ভীমা কোরেগাঁও, ডলারের তুলনায় টাকার দামে অধঃপতন, শেয়ার বাজারে পতন, সবরিমালা মন্দির, মি টু বিতর্ক ছাপিয়ে কেরলের বন্যা যেন সবকিছু ধুয়ে মুছে দিয়ে গিয়েছে। এর সঙ্গে অবশ্যই আরও অনেক ঘটনা রয়েছে যা বছরভর দেশবাসীর নজরে থেকেছে। একনজরে দেখে নেওয়া যাক এবছরের কয়েকটি সেরা ঘটনা সম্পর্কে।

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি

আন্তর্জাতিক বাজারের নানা ওঠানামার কারণে এবছর পেট্রোল সহ জ্বালানির দাম আকাশ ছুঁয়ে ফেলেছিল। মুম্বইয়ে নব্বই টাকার বেশি হয়ে গিয়েছিল পেট্রোলের দাম। ডিজেলের দামও আশি টাকা প্রতি লিটার ছাড়িয়েছিল। কলকাতায়ও পেট্রোল-ডিজেলের দাম আশির গণ্ডী ছাড়িয়ে দৌড় দিয়েছিল নব্বইয়ের ঘরে। যা নিয়ে সারা দেশে দারুণ ক্ষোভ জমেছিল। তবে পাঁচ রাজ্য বিধানসভা ভোটের আগে থেকে দাম কমতে শুরু করে। এখন তা সত্তরদের ঘরে রয়েছে। তবে সারা বছর জ্বালানির দাম নিয়ে বিক্ষোভ সঞ্চারিত হয়েছে।

শেয়ার বাজারে পতন

শেয়ার বাজারে পতন

এবছরের বাজেট অধিবেশনের পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে শেয়ার বাজারে পতন অব্যাহত থেকেছে। আন্তর্জাতিক বাজারের প্রভাব, দুর্বল ভারতীয় টাকা, বিনিয়োগকারীদের আস্থা কমে আসা সহ নানা কারণে শেয়ার বাজারে ব্যাপক ধস নেমেছে। এক একদিনে বিনিয়োগকারীদের কয়েক লক্ষ কোটি টাকা বাজার থেকে উবে গিয়েছে। তবে বছরের একেবারে শেষ লগ্নে শেয়ার বাজারের যা অবস্থা তাতে নতুন বছরে তা কোনদিকে পথ চলে তা অবশ্যই দেখার বিষয়।

টাকার পতন

টাকার পতন

এবছর একদিকে জ্বালানির দাম বৃদ্ধি, শেয়ার বাজারের পতন অন্যদিকে ত্রিফলার মতো ভারতীয় মুদ্রা সত্তরের ঘর ছাড়িয়ে বছরের শেষ অর্ধে আশির ঘরের দিকে যাত্রা করেছিল। তবে এখন আবার ধীরে ধীরে টাকার দাম ডলারের তুলনায় বাড়তে শুরু করেছে। তবে গত অক্টোবরে তা এক ডলারে ৭৪-এর ঘরের নিচে নেমে যায়। এবছর টাকার দাম সর্বকালীন নিম্নমুখীনতার রেকর্ড গড়েছে। এই মুহূর্তে বছর শেষের আগে তা সত্তরের ঘরের নিচে নেমেছে।

সবরিমালা

সবরিমালা

কেরলের লর্ড আয়াপ্পার সবরিমালা মন্দিরে ঋতুমতী মহিলাদের প্রবেশাধিকার নিয়ে বছরভর উত্তাপ বজায় রয়েছে। মাঝে সুপ্রিম কোর্ট এই মামলায় রায় দিয়ে জানিয়ে দেয়, সবরিমালা মন্দিরে সমস্ত বয়সের মহিলার প্রবেশাধিকার রয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ের পরও কেরলে বিক্ষোভ থামেনি। এই রায়ের পাল্টা বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।

মি টু আন্দোলন

মি টু আন্দোলন

কর্মস্থলে মহিলাদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থা নিয়ে মি টু আন্দোলন শুরু হয় ভারতে। বলিউডে অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত অভিযোগ আনেন অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে। সেই শুরু। এরপরে একে একে সমাজের বিভিন্ন জগতের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের নাম এই ঘটনায় উঠে আসতে শুরু করে। শুধু অভিনেতারাই নন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা সাংবাদিক এমজে আকবর সহ অনেকের নামই এখানে উঠে এসেছিল।

কেরলের বন্যা

কেরলের বন্যা

মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে গত অগাস্টে কেরলে ভয়াবহ বন্যা হয়। যা গত একশো বছরে হয়নি। প্রায় পাঁচ শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়। কেরলের সবকটি জেলাই বন্যায় কমবেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অন্তত ২০ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে পিনারাই বিজয়নের সরকার জানিয়েছে। সারা দেশ থেকে এমনকী বিদেশ থেকেও কেরলের জন্য সাহায্য এসেছে। এখনও কেরল পুনর্গঠনের কাজ করছে সরকার।

দলিত বিক্ষোভ

দলিত বিক্ষোভ

দলিত বিক্ষোভের ফলে এবছর ভারত বনধও হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের তপশিলি জাতি-উপজাতি আইন নিয়ে অসন্তোষের কারণেই এই ঘটনা ঘটানো হয়। নতুন রায়ে তপশিলি জাতি-উপজাতিদের অধিকার রক্ষা অরক্ষিত হয়ে পড়ল বলেই দাবি ওঠে। যার জেরে রাজস্থান, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, উত্তরপ্রদেশ ও বিহারে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। ঘটনায় দশ জনের বেশি মানুষ মারাও যান।

ভীমা কোরেগাঁও মামলা

ভীমা কোরেগাঁও মামলা

মহারাষ্ট্রে দলিত-মারাঠা দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পুনের ভীমা-কোরেগাঁও এলাকা। ১০ লক্ষ দলিত সম্প্রদায়ের মানুষ এখানে জমা হন। ১৮১৮ সালের কোরেগাঁও যুদ্ধের দুশো বছপ পালনের উদ্দেশ্যে। এতে বাধা দিলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরে মুম্বই বনধের ডাক দেওয়া হয়। এই ঘটনায় নকশাল নেতাদের অনেককে গ্রেফতার করা হয়। যা নিয়ে কেন্দ্রীয় রাজনীতি বারবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

বিভিন্ন রাজ্যে নির্বাচন

বিভিন্ন রাজ্যে নির্বাচন

২০১৮ সালে মোট ৯টি রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন হয়েছে। তার মধ্যে ত্রিপুরায় ২৫ বছরের বাম সরকার সরিয়ে ক্ষমতায় আসে বিজেপি। মেঘালয়ে কংগ্রেসকে সরিয়ে বিজেপি, এনপিপি জোট ক্ষমতায় আসে। নাগাল্যান্ডে এনপিপি-কে সরিয়ে এনডিপি ক্ষমতায় আসে। কর্ণাটকে কংগ্রেস হেরে গেলেও জেডিএস এর সঙ্গে জোট করে সরকার বাঁচায়। ছত্তিশগড়, রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস সরকার গড়েছে বিজেপিকে সরিয়ে। মিজোরামে কংগ্রসকে সরিয়ে মিজো ন্যাশনাল ফ্রন্ট ক্ষমতায় এসেছে। তেলাঙ্গানায় ক্ষমতা ধরে রেখেছে তেলাঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি।

অমৃতসর ট্রেন দুর্ঘটনা

অমৃতসর ট্রেন দুর্ঘটনা

দশেরা উৎসহে রাবণ জ্বালানোর সময়ে অমৃতসরে রেল লাইনের ধারে জমায়েতের ওপর দিয়ে চলে যায় ট্রেন। মারা যান অন্তত ৬০ জন, আহত হন ১৪০ জনের বেশি মানুষ। এই ঘটনায় লেগে যায় রাজনীতির রং। গাফলতির জন্য কংগ্রেস সরকারের ওপর দায় চাপানো হয়। উৎসবের মরশুমে এমন ঘটনায় সারা দেশে শোকের ছায়া নেমে আসে।

রাফালে বিতর্ক

রাফালে বিতর্ক

৩৬টি রাফালে যুদ্ধবিমান কিনতে ভারত সরকারের সঙ্গে ফ্রান্স সরকারের চুক্তি হয়। ৫৮ হাজার কোটি টাকার এই চুক্তিতে অস্বচ্ছতার অভিযোগ তোলে কংগ্রেস। ড্যাসল্ট সংস্থার সঙ্গে যে চুক্তি হয় সেখানে নরেন্দ্র মোদী সরকার জোর করে অনিল আম্বানির সংস্থাকে ঢুকিয়ে ৩০ হাজার কোটি টাকার সুবিধা পাইয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়। তবে ডিসেম্বরে এসে সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট জানায়, স্বচ্ছতার সঙ্গে রাফালে মামলায় এগিয়েছে মোদী সরকার। অস্বচ্ছতা সহ সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে দেওয়া হয়।

অটল বিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যু

অটল বিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যু

অগাস্ট মাসে ভারতরত্ন তথা দেশের অন্যতম সেরা প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যু হয়। বয়সকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৪ বছর। বিজেপি সরকারের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন বাজপেয়ী। দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন শেষ জীবনে। অবশেষে দিল্লির এইমস হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

নীরব মোদী

নীরব মোদী

এবছরের শুরুতেই পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে জালিয়াতির ঘটনা সামনে আসে। কয়েক হাজার কোটি টাকার এই জালিয়াতিতে নাম উঠে আসে হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী ও তার মামা মেহুল চোকসির। ব্যাঙ্কের কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ব্যাঙ্ক থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে শেষে ধরা পড়েন তিনি। তবে কীর্তি জানাজানি হওয়ার আগেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে বিদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। এই ঘটনা ভারতের ব্যাঙ্কিং সেক্টরে বড় ধাক্কা দিয়ে গিয়েছে।

বিজয় মালিয়া

বিজয় মালিয়া

ঋণখেলাপির মামলায় ভারত ছাড়া বিজয় মালিয়া সারা বছর ধরে খবরের শিরোনামে ছিলেন। লন্ডনের ওয়েস্ট মিনস্টার আদালতে মালিয়াকে নিয়ে রায় হলে তাতে নজর রেখেছে ভারতের সমল্ত মিডিয়া। কবে মালিয়াকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে, তা নিয়েও অনেক লেখালেখি হয়েছে। তাকে লন্ডন থেকে দেশে ফেরত আনতে ভারত সরকার চেষ্টা চালাচ্ছে। সবমিলিয়ে তিনি বছরভর ফুটেজ পেয়েছেন।

English summary
Year Ender 2018 : Top national news of India in this year
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X