• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

সফল হল DRDO-র পরীক্ষণ, কী এই হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেল?

হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেল বা এইচএসটিডিভি (HSTDV) আদতে একটি মানব বিহীন যান যা শব্দের গতি থেকে ছয়গুণ গতিতে যেতে সক্ষম। এই যানের মাধ্যমে পারমাণবিক ওয়ারহেড সহ শত্রুপক্ষের বস্তুতে হানা দেওয়া সম্ভব হবে। লং রেঞ্জেও এই যানের মাধ্যমে ক্ষেপণাস্ত্র পাঠিয়ে শত্রুকে পরাস্ত করা সম্ভব হবে। ভূমি, আকাশ এবং যুদ্ধজাহাজ তিন প্ল্যাটফর্ম থেকেই ছোড়া যাবে এই ক্ষেপণাস্ত্র। সক্ষম হবে পরমাণু অস্ত্র থেকে শুরু করে রাসায়নিক ও জৈবিক অস্ত্র বহনেও।

হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেল কী

হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেল কী

হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেল হল একধরনের কেরিয়ার যা দূরপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপাস্ত্রকে উড়িয়ে নিয়ে যেতে পারে। একধরনের স্ক্র্যামজেট এয়ারক্রাফ্ট যার কাজ শব্দের চেয়ে দ্রুতগামী ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রকে তার লক্ষ্যে পৌঁছে দেওয়া। শুধু গতিই নয়, এই ক্ষেপণাস্ত্রকে নিয়ন্ত্রণ করাও অনেকটাই সহজ। HSTDV প্রযুক্তির একটি বড় দিক হল এটি ব্যবহার করে ক্ষেপণাস্ত্রের গতি বাড়ানোর পাশাপাশি খুব কম খরচে রকেট উত্ক্ষেপণও করা যাবে।

ছোটখাটো স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কাজে লাগবে এটি

ছোটখাটো স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কাজে লাগবে এটি

তাছাড়া ছোটখাটো স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কাজেও লাগে এই ধরনের হাইপারসনিক কেরিয়ার। ডিআরডিও এই প্রযুক্তিতে কাজ করছিল কয়েক বছর ধরে। এই ধরনের স্ক্র্যামজেট এয়ারক্রাফ্টের উৎক্ষেপণের জন্য লাগে রকেট লঞ্চ বুস্টার। এদিন ওড়িশা উপকূল থেকে অগ্নি মিসাইল বুস্টার ব্যবহার করেই এই হাইপারসনিক ভেহিকলের উৎক্ষেপণ হয়েছিল।

১ মেট্রিক টন ওজনের ভেহিকেল প্রায় ১৮ ফুট লম্বা

১ মেট্রিক টন ওজনের ভেহিকেল প্রায় ১৮ ফুট লম্বা

এই ভেহিকেলের স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার উচ্চতা অবধি অনায়াসে উড়ে যেতে পারে। ১ মেট্রিক টন ওজনের ভেহিকেল প্রায় ১৮ ফুট লম্বা। স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন থাকে এর পেটের ভেতরে। ভেহিকলের বাইরের খোলস, তার ডানা সবই টাইটানিয়ামের তৈরি। শত্রুপক্ষও এর অবস্থান নির্ধারণ করতে পারে না। কার্যকারিতাও বহুমুখী।

বহুদূর পর্যন্ত মুহূর্তের মধ্যে উড়ে যেতে পারে

বহুদূর পর্যন্ত মুহূর্তের মধ্যে উড়ে যেতে পারে

এই ভেহিকেলের সঙ্গে ক্রুজ মিসাইল যুক্ত করে উড়িয়ে দিলে মাঝপথে স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিন চালু হয়ে যায়। মিসাইল সমেত বহুদূর পর্যন্ত মুহূর্তের মধ্যে উড়ে যেতে পারে এই ভেহিকেল। এদিন ওড়িশার উপকূলে ডক্টর আবদুল কালাম আইল্যান্ডের লঞ্চপ্যাড থেকে শব্দের চেয়েও দ্রুতগতিতে উড়ে যায় এই হাইপারসনিক টেকনোলজি ডেমনস্ট্রেটর ভেহিকেল।

পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ সফল হয়েছে

পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ সফল হয়েছে

শব্দের চেয়েও দ্রুতগামী সুপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র বহনকারী এই ভেহিকলের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ সফল হয়েছে বলেই জানা গেছে। ২০ সেকেন্ডে ৩০ কিলোমিটারের বেশি উচ্চতায় উড়ে গেছে হাইপারসনিক ক্রুজ ভেহিকেল। গত বছর অগ্নি-১ রকেট মোটরের সাহায্যে হাইপারসনিক ভেহিকলের উৎক্ষেপণ হয়েছিল। কিন্তু স্ক্র্যামজেট ইঞ্জিনের কিছু গাফিলতির জন্য পরীক্ষা সফল হয়নি।

দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় এলিট লিস্টে ঢুকল ভারত

দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় এলিট লিস্টে ঢুকল ভারত

তবে এদিন দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় এলিট লিস্টে ঢুকল ভারত। এই পরীক্ষা সফল হওয়ার আমেরিকা, রাশিয়া ও চিনের পর বিশ্বের চতুর্থ দেশ হিসেবে সেই হাইপারসনিক প্রযুক্তিধর দেশে পরিণত হল ভারত। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ভারতের অস্ত্রভান্ডারে চলে আসবে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি এই হাইপারসনিক মিসাইল।

কোপ ব্যাংকের চাকরিতেও! খরচ কমাতে ৩০ হাজার কর্মীকে স্বেচ্ছাবসরে পাঠাচ্ছে স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া

লাদাখের চুশুল সেক্টরে ১০ হাজার সেনা মোতায়েন চিনের! পাল্টা শক্তিবৃদ্ধি ভারতেরও

English summary
What is Hypersonic Technology Demonstrator Vehicle that was tested by DRDO in Odisha, Know in Bengali
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X