• search

রাস্তায় চলার সময় সামনে ছিল গরু, সন্দেহের বশে প্রৌঢ়কে মার গোরক্ষকদের

  • By Sritama Mitra
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    গোরক্ষকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর কড়া বার্তা সত্ত্বেও ফের একবার গোরক্ষকদের তাণ্ডবের শিকার হলেন রাজৌরির এক প্রৌঢ়। ৭০ বছর বয়সী লাল হুসেন জম্মু ও কাশ্মীরের বাকোরির একটি ব্যাঙ্কের ব্র্যাঞ্চে কিছু টাকা রাখতে যাচ্ছিলেন তিনি। তখনই তাঁর ওপর চড়াও হয় কয়েকজন গোরক্ষক। এমনই অভিযোগ লাল হুসেনের। ঘটনা গ্রেফতার করা হয় কুলদীপ রাজ নামে এক গোরক্ষককে।

    রাস্তায় চলার সময় সামনে ছিল গরু, সন্দেহের বশে প্রৌঢ়কে মার গোরক্ষকদের

    লাল হুসেনের দাবি, তাঁর কোনও গরু নেই। তাঁর কাছে দুটি মোষ রয়েছে। তাঁর বাড়িতে যা ভেড়া ও ছাগল ছিল তা তিনি ১৫ দিন আগই দেড় লাখ টাকায় বিক্রি করে দেন। তাঁর অভিযোগ, গোরক্ষকরা চড়াও হয়েই তাঁর কাছ থেকে টাকা রব্য়াগ ছিনিয়ে নিয়ে ,তাঁকে অকথ্য মারতে থাকে। প্রচণ্ড মরাধরের পর, তিনি মারা গিয়েছেন ভেবে তাঁকে নর্দমায় ফেলে দিয়ে চলে যায় গোরক্ষকরা। সেই অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

    লাল হুসেনের ছেলের বক্তব্য , ঘটনার ঠিক আগে রাস্তায় চলার সময়ে , লাল হুসেনের আগে যাচ্ছিলেন এক যুবক। যুবকের সঙ্গে ছিল একটি গরু। লাল হুসেনের পরিবারের অনুমান , গরুর সামনে থাকার জন্য়ই হয়ো লাল হুসেনকে আক্রমণ করা হয়।

    English summary
    Two days after he was attacked, allegedly by some gau rakshaks, Lal Hussain, 70, still doesn’t know why he was targeted. Bleeding from injuries on the head and legs, he was thrown into a drain, and left for dead. Till some people saw him lying unconscious, about half-an-hour later, and took him home. Hussain, a nomadic Gujjar, says he doesn’t have any cows, only two buffaloes. He had some sheep and goats, but he sold these about a fortnight ago for Rs 1.5 lakh.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more