• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    বদলি করেও তাঁকে দমানো যাবে না, যোগী সরকারকে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা আইপিএস শ্রেষ্ঠা ঠাকুরের

    ট্রাফিক আইন অমান্য করায় কিছুদিন আগেই উত্তেরপ্রদেশে , বিজেপি নেতা প্রমোদ লোধির সাথে তর্কাতর্কিতে লিপ্ত হন মহিলা পুলিশ আধিকারিক শ্রেষ্ঠা ঠাকুর। সেঘটনার জেরে ,পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অপরাধে , লোধি সহ ৫ বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতারও করেন এই দুঁদে মহিলা পুলিশ আধিকারিক। আর তারপরই তাঁকে বদলি করে দেওয়া হয় নেপাল সীমান্তের বারাইচে।[আরও পড়ন:শাসককে শিক্ষা দেওয়া মহিলা পুলিশ অফিসার বদলি এই রাজ্যে]

    এই ঘটনার প্রেক্ষিতে শ্রেষ্ঠা একটি ফেসবুক পোস্ট করেন। যাতে তিনি লেখেন ' যেখানেই যাওয়া হোক সেখানেই আলো ছড়াবে। একটি প্রদীপের কখনও নিদজের ঘর বলে কিছু হয় না।' পাশপাশি পোস্টে তিনি জানিয়েছেন , এই বদলিকে তিনি তাঁর ভালো কাজের পুরস্কার হিসাবে নিয়েছেন। তিনি লেখেন, ' নেপাল সীমান্তের বারাইচে বদলি হচ্ছি। চিন্তা করনো না বন্ধুরা আমি খুশি। এটাকে আমি পুরস্কার হিসাবে নিচ্ছি। বারাইচে সবাইকে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানালাম।'

    বদলি করেও তাঁকে দমানো যাবে না, যোগী সরকারকে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা আইপিএস শ্রেষ্ঠা ঠাকুরের

    মনে করা হচ্ছে বিজেপি নেতাদের সঙ্গে সেদিনের ঝামেলার ঘটনার পর থেকেই এই সাহসী পুলিশ আধিকারিককে এভাবে বদলি করা হল। বিজেপি নেতারাই এই আধিকারিকের বদলির জন্য যোগী সরকারের দ্বারস্থ হয়েছিল বলেও খবর রয়েছে অসমর্থিত সূত্রে।

    English summary
    Uttar Pradesh’s brave lady police officer, Shreshtha Thakur, has taken to Facebook to respond to her sudden transfer by Yogi Adityanath government after she sent five BJP leaders to jail for intimidation.Her Facebook post said, “Wherever it goes, it distributes light. A flame doesn’t have a house of its own. Got transfer to Bahraich, it’s Nepal border, don’t worry my friends I am happy ..I accept it as a reward for my good work. .u all are invited to bahraich (sic).”
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more