• search

জম্মু ও কাশ্মীরে ৮ম বারের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন! রাজ্যপাল ভোরার সময়ে ৪র্থ বার, জেনে নিন বিস্তারিত

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    জম্মু ও কাশ্মীরে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির জন্য কেন্দ্রের প্রস্তাব রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ অনুমোদন করায় অষ্ঠমবারের জন্য সরাসরি রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হল। নরেন্দ্র মোদীর শাসন কালে জম্মু ও কাশ্মীরে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হল তিনবার। এর আগে পাঁচবার সেখানে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছিল।

    জম্মু ও কাশ্মীরে ৮ম বারের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন! রাজ্যপাল ভোরার সময়ে ৪র্থ বার, জেনে নিন বিস্তারিত
    • জম্মু ও কাশ্মীরে প্রথমবার রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয় ১৯৭৭-এর মার্চে। তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রতিষ্ঠাতা শেখ আবদুল্লা সরকারের ওপর থেকে কংগ্রেস সমর্থন প্রত্যাহার করে নেওয়ায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়। সেই সময় দিল্লিতে ছিল দেশের প্রথম অকংগ্রেসি সরকার।  ইন্দিরা গান্ধী এবং শেখ আবদুল্লার চুক্তি হয়েছিল ১৯৭৫ সালে। এর পরেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসেছিলেন শেখ আবদুল্লা। এরপরে ১৯৭৭-এর জুলাইয়ের নির্বাচনে জিতে ফের রাজ্যের ক্ষমতায় ফেরেন শেখ আবদুল্লা।
    • দ্বিতীয় বারের জন্য রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছিল ১৯৮৬ সালের মার্চে। সেই সময় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন আবদুল্লার জামাই গুলাম মহম্মদ শাহ। কংগ্রেসের সমর্থন নিয়ে সরকার গড়ার উদ্দেশে ১৯৮৪ সালে ন্যাশনাল কনফারেন্সে ভাঙন ধরিয়েছিলেন গুলাম মহম্মদ শাহই। ১৯৮৬ সালে আইনশৃঙ্খলার অবনতির অভিযোগ করে কংগ্রেস সেখানকার সংখ্যালঘু সরকারের ওপর থেকে সমর্থন তুলে নেওয়ায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়। সেই সময় কেন্দ্রে ছিল রাজীব গান্ধীর নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকার। আর রাজ্যপাল ছিলেন জগমোহন মালহোত্রা।তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর সঙ্গে ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রেসিডেন্ট ফারুক আবদুল্লার পরামর্শের পর ১৯৮৬-র নভেম্বরে সেখান থেকে রাষ্ট্রপতির শাসন প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। দুদলের মধ্যে ক্ষমতার ভাগাভাগি কথা হয়েছিল।
    • জগমোহন দ্বিতীয়বারের জন্য জম্মু ও কাশ্মীরের রাজভবনে ফেরেন ১৯৯০-এর জানুয়ারিতে। তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লার ইস্তফার কারণে সেখানে তৃতীয়বারের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়। এটাই ছিল রাজ্যে দীর্ঘ সময়ের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন। কেননা সেই সময় রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় উগ্রপন্থী কার্যকলাপ মাথাচাড়া দেয়। ১৯৯৬-এর অক্টোবর পর্যন্ত রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি ছিল। সেই সময় নতুন করে বিধানসভা নির্বাচন করা হয়।
    • ২০০২-এর অক্টোবরে রাজ্যে চতুর্থবারের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছিল। বিধানসভা নির্বাচনের দলের পরাজয়ের কারণে কেয়ারটেকার মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা শাসন চালিয়ে যেতে অস্বীকার করায় সেখানে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করে কেন্দ্রের অটলবিহারী বাজপেয়ীর নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার। মাত্র ১৫ দিনের জন্য। তবে এটাই ছিল এখনও পর্যন্ত সব থেকে কম সময়ের রাষ্ট্রপতির শাসনকাল। কেননা ২ নভেম্বর কংগ্রেস ও ১২ নির্দল সদস্যের সমর্থন নিয়ে সেখানে পিডিপি সরকার গঠন করেছিল।
    • ২০০৮-এর জুলাইয়ে রাজ্যে পঞ্চমবারের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছিল। তবে তা ১৭৪ দিনের জন্য। গুলাম নবি আজাদের নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস জোট সরকারের ওপর থেকে পিডিপি সমর্থন প্রত্যাহার করে নেওয়ায় সেখানে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছিল। সেই সময় কেন্দ্রে ছিল মনমোহন সিং-এর নেতৃত্বে প্রথম ইউপিএ সরকার। ২০০৯-এর ৫ জানুয়ারি সেখানে শপথ নেয় ওমর আবদুল্লার নেতৃত্বাধীন সরকার। তিনি ছিলেন রাজ্যের সব থেকে কমবয়সী মুখ্যমন্ত্রী।
    • ২০১৫-র জানুয়ারিতে রাজ্যে ষষ্ঠবারের জন্য রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়। কেননা ২০১৪-র ডিসেম্বরে হওয়া বিধানসভা নির্বাচনে কোনও দল কিংবা কোনও জোটই সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় সেখানে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়। তবে পিডিপি ও বিজেপির চুক্তির প্রেক্ষিতে ২০১৫-র ১ মার্চ সেখানে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মুফতি মহম্মদ সইদ।
    • ২০১৬-তে সপ্তমবারের জন্য রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয়েছিল। রাজ্যপাল এনএন ভোরার সময়ে যা তৃতীয়বার।
    • আর ২০১৮-র জুন। রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা হয় অষ্টমবারের জন্য। পিডিপির নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের ওপর থেকে বিজেপি সমর্থন প্রত্যাহার করে নেওয়ায় পদত্যাগ করেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। রাজ্যপাল এনএন ভোরার রিপোর্টের ভিত্তিতে রাষ্ট্রপতির কাছে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির সুপারিশ করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। এরপর রাজ্যপাল ভোরা নিজের সময়ে চতুর্থবার আর রাজ্যের জন্য অষ্টমবারের জন্য রাষ্ট্রপতির শাসন লাগু করেন।
    English summary
    This is for the 8th times as President's rule is imposed in Jammu and Kashmir in last 4 decades.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more