• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

মানুষকে বোকা বানাতে, টাকা কামাতে ভোটে দাঁড়িয়েছি, সাফাই ভোটপ্রার্থীর

আগ্রা, ২৮ জানুয়ারি : আগ্রা দক্ষিণ বিধানসভা আসন থেকে ভোটে দাঁড়ানো নির্দল প্রার্থী নিজের মুখে যা দাবি করলেন তারপরে তাঁকে যদি কেউ ভোট দেন তাকে চরম বিস্ময় বললেও কম বলা হবে।

একঝাঁক সংবাদ চ্যানেলের সামনে গোপাল চৌধুরী নামে এই প্রার্থী দাবি করেছেন, টাকা কামাতে তিনি রাজনীতিতে এসেছেন। বলেছেন, টাকা রোজগার ছাড়া রাজনীতিতে আসার আমার আর কোনও কারণ নেই। বিধায়ক হলে আমি সবরকম সুযোগসুবিধা পাব।

মানুষকে বোকা বানাতে, টাকা কামাতে ভোটে দাঁড়িয়েছি, সাফাই ভোটপ্রার্থীর

নির্দল রাজনীতিক গোপালের মতে, এখনকার দিনে প্রত্যেকেই রাজনীতিতে প্রবেশ করে টাকা রোজগারের জন্য। তিনিও তাই করবেন। তবে রাজনীতিতে নিজেকে নবীশ বলে দাবি করে গোপাল বলেছেন, বিধায়ক হওয়ার পরে কীভাবে টাকা রোজগার করতে হয় তা তিনি জানেন না। তবে সঙ্গী আধিকারিকেরা তা তাঁকে শিখিয়ে দেবেন।

এর পাশাপাশি মানুষকে ধোঁকা দেওয়ার ঘটনায় একেবারে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে টেনে এনে গোপাল চৌধুরী বলেছেন, নরেন্দ্র মোদী যেমন ১২৫ কোটি মানুষকে ধোঁকা দিয়েছেন তেমনই তিনিও সেই পথ অনুসরণ করবেন। ভোটে কীভাবে মানুষকে বোকা বানিয়ে জেতা যায় সেই বিদ্যা তিনি রপ্ত করবেন বলে জানিয়েছেন এই নির্দল রাজনীতিক।

প্রসঙ্গত, এবারের উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা ভোট শুরু হবে ১১ ফেব্রুয়ারি এবং চলবে ৮ মার্চ পর্যন্ত। মোট সাত দফায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে চারশোর বেশি বিধানসভা আসনে।

English summary
An independent candidate contesting elections from Agra South constituency in poll-bound Uttar Pradesh, has claimed that he entered politics to earn money. “I have no motive to enter politics besides earning money so that I can invest and avail all the facilities of an elected MLA,” Gopal Chaudhary was quoting saying by news agency ANI.
For Daily Alerts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more