• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

লকডাউনে সোশ্যাল মিডিয়ায় বুঁদ যুবসমাজ, বাড়ছে অতিরিক্ত মানসিক চাপ

  • |

করোনা প্রাদুর্ভাবের জেরে বন্ধ হয়েছে স্কুল, কলেজ, স্কুল সহ প্রায় সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই। বন্ধ রয়েছে অফিস কাছারিও। এমতাবস্থায় একটানা দুমাসের লকডাউনের জেরে বর্তমানে দিনের বেশিরভাগ সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় কাটাচ্ছে যুব সমাজের একটা বড় অংশ।

লেডি শ্রী রাম কলেজ ও এইমসের উদ্যোগে চলে সমীক্ষা

লেডি শ্রী রাম কলেজ ও এইমসের উদ্যোগে চলে সমীক্ষা

আর এই অতিরিক্ত সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের জেরে বাড়ছে অতিরিক্ত মানসিক চাপ। সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় এই চিত্র উঠে এসেছে। দিল্লির লেডি শ্রী রাম কলেজ এবং অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেসের (এআইএমএস) অধ্যাপকদের দ্বারা এই সমীক্ষা চালানো হয়েছিল বলে জানা যাচ্ছে। প্রাথমিক ভাবে মধ্যবিত্ত ও উচ্চ-মধ্যবিত্ত পরিবারের যুবক-যুবতীদের উপরেই প্রধানত এই সমীক্ষা চালানো হয়।

 দিনে সাড়ে ছয় ঘন্টার বেশি সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যয়

দিনে সাড়ে ছয় ঘন্টার বেশি সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যয়

এই সমীক্ষায় দেখা গেছে এই সমস্ত বাড়ির যুবক যুবতীরা বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে সাড়ে ছয় ঘন্টার বেশি সময় সোশ্যাল মিডিয়ার পিছনে ব্যয় করেন। আগের সাধারণ সময়ের থেকে দীর্ঘ সময় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের ফলে তাদের ক্রমেই মানসিক অশান্তি ক্রমেই বেড়ে চলেছে। সূত্রের খবর, এর ফলে অনেকেই গৃহবন্দী অবস্থায় পারিবারিক অশান্তির মধ্যে জড়িয়ে পড়ছেন অনেকে।

কাদের উপর চালানো হয় এই সমীক্ষা ?

কাদের উপর চালানো হয় এই সমীক্ষা ?

লেডি শ্রীরাম কলেজের অধ্যাপিকা ডাঃ কানিকা আহুজা, ডাঃ অনিশা জুনেজা এবং এইমস-এর ডাঃ ইয়াতান পাল সিং বালহারা ১৮-২৫ বছর বয়সী ৩০০ এরও বেশি কলেজ পড়ুয়ার উপর এই সমীক্ষা চালান বলে খবর। এর মধ্যে ১৮৫ জন মহিলা এবং ১২৩ জন পুরুষ ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। যাদের মধ্যে আবার ২৭৪ জন স্নাতক কোর্সে এবং ৩৪ জন স্নাতকোত্তর কোর্সে পাঠরত।

৪৪ শতাংশ পড়ুয়া মনে করছেন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে বাড়ছে মানসিক চাপ

৪৪ শতাংশ পড়ুয়া মনে করছেন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে বাড়ছে মানসিক চাপ

এর মধ্যে প্রত্যেকে গড়ে প্রতিদিন ৬.৭৫ ঘন্টা ফেসবুক ব্যবহার করছেন বলে জানা যাচ্ছে। এবং সমীক্ষায় অংশ নেওয়া পড়ুয়াদের মধ্যে ৪৪ শতাংশ পড়ুয়া স্বীকার করে নিয়েছেন অতিরিক্ত সময় সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের ফলে তাদের মানসিক চাপ আগের থেকে অনেকটাই বেড়ে গেছে। সমাজের শ্রেণি বিভাজন অনুসারে দেশের প্রতিটি পড়ুয়াই সাধারাণ বিভিন্ন ধরণের আর্থিক সমস্যা, শিক্ষার চাপ, একাধিক সামাজিক সমস্যা, সম্পর্ক, সময়ের ব্যবহার সহ একাধিক সমস্যার সম্মূখীন হয়। বর্তমান গবেষণা বলছে লকডাউনে গহবন্দী অবস্থার জের ও সোশ্যাল মিডিয়ায় বুঁদ হয়ে থাকার ফলে মানসিক চাপ অনেকাংশেই বেড়ে গেছে।

আমফান নিয়ে বিশেষ সতর্ক কলকাতা পুলিশ

মমতাকে ফোন অমিত শাহের! দিলেন ঘূর্ণিঝড় আম্ফান নিয়ে সাহায্যের আশ্বাস

English summary
Using excessive social media in the lockdown increases tension among young people
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X