তামিলনাড়ু 'অনার কিলিং' মামলায় দোষী মৃত শঙ্করের শ্বশুর সহ ৬ জন , এই চরম সাজা দিল আদালত

  • Posted By:
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    তামিলনাড়ু 'অনার কিলিং' বা পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে খুনের কাণ্ডে ৬ জনকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দিয়েছে তিরুপুর আদালত। ২০১৩ সালের এই ঘটনায় দলিত যুবক শঙ্করকে হত্যার দায়ে শঙ্করের শ্বশুর সমেত ৬ জনকে মৃ্ত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়া হয় মঙ্গলবার।

    তামিলনাড়ু 'অনার কিলিং' মামলায় দোষী মৃত শঙ্করের শ্বশুর সহ ৬ জন , এই চরম সাজা দিল আদালত

    [আরও পড়ুন:গণ ধর্ষিতা ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হওয়ার ভাবনা রতুয়ার পরিবারের]

    ২০১৩ সালের ১৩ মার্চ কৌশল্যা ও তাঁর স্বামী শঙ্করের ওপর তামিলনাড়ুর উদুমালপেট অঞ্চলে হামলা চালানো হয়। কৌশল্যার স্বামী শঙ্কর ঘটনাস্থলেই মারা যায়, আর অদ্ভুতভাবে বেঁচে যান কৌশল্যা। ঘটনার প্রেক্ষিতে অনার কিলিং এর অভিযোগ ওঠে। জানা যায়, কৌশল্যা থেবর সম্প্রদায়ের মেয়ে হয়ে দলিত সম্প্রদায়ের শঙ্করকে বিয়ে করাতে কৌশল্যার পরিবারের তরফে আপত্তি ওঠে।

    কৌশল্যা অভিযোগ তোলেন যে তাঁর পরিবারের তরফেই শঙ্করকে হত্যা করা হয়। তাঁর আরো অভিযোগ ছিল, শঙ্করের কাছ থেকে তাঁকে আলাদা করতে তাঁকে অপহরণ করার চেষ্টাও করে তার নিজের বাবা। এই অভিযোগের ভিত্তিতে আদালতে মামলা ওঠে। কোশল্যার বাবা চিন্নাস্বামী সহ অনেকের বিরুদ্ধেই মামলা ওঠে। আদালতে সাক্ষী হিসাবে অনেকে এসেও , কী দেখেছিলেন খুনের দিন, তা জানাননি। এরপর ২০ টি মাস কেটে গিয়েছে। শেষমেশ মঙ্গলবার জামাই শঙ্করকে অনার কিলিং বা জাতপাতের বিদ্বেষে খুনের দায়ে কৌশল্যার বাবা সমেত ৬জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

    English summary
    A Tirupur court on Tuesday convicted all the eleven accused in the murder of a Dalit youth. Six people, including the deceased youth Shankar's father-in-law, were sentenced to death.Principal District Judge Alamelu Nataraj convicted all the accused, including Kausalya’s father Chinnaswamy, maternal uncle and another relative for murdering Shankar in Udumalaipet, Tirupur district in March 2016. Kausalya's mother Annalakshmi was found not guilty.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more