ভারতের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক ভোট। আপনি কি এখনও অংশগ্রহণ করেননি ?
  • search

দেশের নানা প্রান্তে দ্রুত ছড়াচ্ছে সোয়াইন ফ্লুয়ের ভাইরাস, বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    মহারাষ্ট্র , গুজরাত সহ দেশের পশ্চিম দিকের রাজ্যগুলিতে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে সোয়াইন ফ্লু-এর জেরে মৃত্য়ুর ঘটনা। সবচেয়ে বেশিজন মারা গিয়েছেন মহারাষ্ট্রের নাসিকে। গোটা মহারাষ্ট্রে সোয়াই ফ্লুতে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪৪০।

    [আরও পড়ুন:"সোয়াইন ফ্লু হয় মশার কামড় থেকে" : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়]

    শুধুমাত্র নাসিকেই এখনও পর্যন্ত এমাসে মারা গিয়েছেন ৫৩ জন. গোটা বছরে এখনও H1N1 ভাইরাসের শিকার হয়েছেন ৪০০০ মানুষ। দিল্লি, ওড়িশা , দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাব, গুজরাতে দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। ২০১৭ সালেই গুজরাতে ২৬০ জনের মৃ্ত্যুরল খবর পাওয়া গিয়েছিল।

    দেশের নানা প্রান্তে দ্রুত ছড়াচ্ছে সোয়াইন ফ্লুয়ের ভাইরাস, বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

    গত ১২ দিনে পাঞ্জাবে ৩৮জনের মৃ্ত্যুর খবর এসেছে সোয়াইন ফ্লুতে। সেরাজ্যের মোট ১৩ টি জেলা থেকে ক্রমাগত আসছে সোয়াইন ফ্লুয়ের খবর। এছাড়াও উত্তর প্রদেশ ও হরিয়াণাতেও মোট ৭ জনের মৃত্য়ুর খবর মিলেছে এখনও পর্যন্ত। দিল্লিতে এখনও পর্যন্ত ১০৬০ জনের দেহে মিলেছে H1N1ভাইরাসের চিহ্ন।

    English summary
    Swine flu continues to claim more lives as the vector-borne disease is spreading across the country. In Maharashtra, the deadly disease has taken the lives of at least 440 people so far this year, reported newsx.com. The death toll is highest in Nasik with 53 people losing their lives this month, followed by Pune and Nagpur. This year more than 4,000 cases of H1N1 have been recorded in the state. Along with Maharashtra, the H1N1 virus has been widely spreading in Delhi, Odisha, Uttar Pradesh, Gujarat and Punjab among other states.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more