• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    অন্ধ ছাত্রীর বিরুদ্ধে সমকামীতার 'অভিযোগ', ছাড়তে বলা হল হস্টেল

    বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনস্ত মহিলা মহাবিদ্যালয়ের এক অন্ধ ছাত্রীর মধ্যে সমকামীতার লক্ষণ দেখতে পাওয়ায় তাঁকে হস্টেল থেকে বেরিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘটনা ঘিরে ছড়িয়ে চাঞ্চল্য। ওই ছাত্রীর বিরুদ্ধে সমকামীতা ও নিয়ম না মানারা অভিযোগ তোলা হয়েছে। উল্লেখ্য, কলেজ কর্তৃপক্ষের তরফে ছাত্রীর অভিভাবককে ডেকে তাঁকে বাড়ি নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করাবার কথাও বলা হয়েছে।

    সমকামীতার প্রবণতার 'অভিযোগে' হস্টেল ছাড়ার নির্দেশ অন্ধ ছাত্রীকে

    কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি , বহুদিন ধরেই ওই ছাত্রী আশপাশের অনেক ছাত্রীকে হেনস্থা করছিল। সেই সমস্ত অভিযোগ পেয়েই এই পদক্ষেপ নেয় কলেজ। তবে 'সমকামীতা'কে কীভাবে 'রোগ' আখ্যা দিয়ে ছাত্রীকে চিকিৎসার পরামর্শ দিতে পারে কলেজ , তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হলেই মুখে কুলুপ আঁটে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

    যদিও কয়েকজন ছাত্রীর দাবি, যেহেতু ওই ছাত্রীটি অন্ধ তাই কলেজ কর্তৃপক্ষের এই বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে দেখা উচিত ছিল। যেভাবে তাঁকে কলেজ কর্তৃপক্ষ হস্টেল থেকে চলে যেতে বলেছে, তা অনেকের কাছেই গ্রহণযোগ্য নয়।

    English summary
    A first-year BA Honours student of Mahila Maha Vidhyalaya, affiliated to the Banaras Hindu University (BHU), was allegedly asked to leave the hostel because she showed ‘homosexual tendencies and indiscipline’. The student’s parents were called by the authorities to take her away and to get her treated for her ‘disease’. While the college authorities maintained that the student was asked to leave as she had been harassing fellow students, a professor claimed that it was because of her “showing tendencies of being homosexual”.
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more