• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

স্মৃতির সরবিমালা নিয়ে নতুন সাফাইয়ে বিতর্কের আঁচ আরও ঊর্ধ্বমুখী

সবরিমালায় মহিলাদের প্রবেশ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রেক্ষিতে নিজের মত জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। তিনি বলেন, প্রার্থনা জানানোর অধিকার আমার আছে। কিন্তু তা বলে পবিত্র স্থান অপবিত্র করার অধিকার আমার নেই।

স্মৃতির সরবিমালা নিয়ে নতুন সাফাইয়ে বিতর্কের আঁচ আরও ঊর্ধ্বমুখী

তাঁর কথায়, আমি একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের উপরে কিছু বলার অধিকার আমার নেই। তবু বলছি, রক্তমাখা স্যানিটারি ন্যাপকিন আমরা বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে যাই না। তাহলে কেন সেটিকে আমরা দেবস্থানে টেনে নিয়ে যাচ্ছি? এদিন এই বিতর্কে ফের মুখ খুলে আগের মন্তব্যে সাফাই দিলেন স্মৃতি। পুরো ঘটনাকে তাঁর বিরুদ্ধে প্রচার বলে দাগলেন।

ফের জানালেন, প্রার্থনা জানানোর অধিকার সকলের রয়েছে। তবে দেবস্থান অপবিত্র করার অধিকার কারও নেই। তিনি বলেন, হিন্দু হয়ে জন্মে তিনি পার্সিকে বিয়ে করেছেন। তাঁকেও স্বামীর ধর্মের দেবস্থানে ঢুকতে দেওয়া হয় না। তাতে তিনি কোনও আদালতে গিয়ে মামলা করেননি। ফলে এই ঘটনাকে স্বাভাবিক বলে মনে করছেন স্মৃতি।

[আরও পড়ুন: ৫ বছর কেটে গেলেও কথা রাখেননি মুখ্যমন্ত্রী, ১০ ফ্যাক্টরে এবার ফয়সালা সরকারের ]

ঘটনা হল, সুপ্রিম কোর্টের রায়কে মানা নিয়ে নানা মহলে নানা আলোচনা চলছে। অনেকে এই রায়কে মানতে পারছেন না। সুপ্রিম রায়ে ১০ থেকে ৫০ বছরের মহিলারা এই মন্দিরে ঢোকার অনুমতি পেয়েছেন। তবে এই নিয়ে অনেকেই বিরোধিতা করেন। স্মৃতি ঘুরিয়ে সেই দলে নাম লিখিয়েছেন বসে অনেকে মনে করছেন।

[আরও পড়ুন:একদিকে মোদী অন্যদিকে বসুন্ধরা, কাকে বাছবেন! রাজস্থানে দ্বন্দ্বে খোদ ভোটাররা ]

[আরও পড়ুন: সাত দিনের হেফাজত সিবিআইয়ের ডিএসপি দেবেন্দ্র কুমারের, সঙ্গে সাসপেনশন]

English summary
Smriti Irani slams critics of her comment on menstruating woman and Sabarimala Temple
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X