• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

মোদীর ২০১৩-র টুইট কংগ্রেসের অস্ত্র ২০২০-তে! প্রধানমন্ত্রীর জবাব চাইলেন থারুর-সুরজেওয়ালা

কংগ্রেস নেতা শশী থারুর ও রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে একহাত নিলেন লাদাখ-ইস্যুতে। গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন নরেন্দ্র মোদী একটি পোস্ট করেছিলেন। এখন ঘুরিয়ে সেটাই মোদীর দিকে নিক্ষেপ করলেন থারুর ও সুরজেওয়ালা। মোদীর করা ২০১৩-র টুইট কংগ্রেসের অস্ত্র হল ২০২০-তে।

চিন ইস্যুতে মোদীর ২০১৩-র টুইট কংগ্রেসের অস্ত্র ২০২০-তে

কংগ্রেসের পক্ষে টুইট করে জানানো হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীকে এখন তাঁর নিজের প্রশ্নের জবাব দিতে হবে। ২০১৩ সালে টুইটে নরেন্দ্র মোদী তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ টু সরকারকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, কেন ভারতীয় বাহিনী লাদাখের নিজস্ব অঞ্চল থেকে সরে আসছে?

মোদীর টুইটটি ছিল- চীন তার বাহিনী প্রত্যাহার করেছে, তবে আমি অবাক হচ্ছি, তা সত্ত্বেও কেন ভারতীয় বাহিনী প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ থেকে সরে আসছে? আমরা কেন পিছপা হচ্ছি?" নরেন্দ্র মোদী ২০১৩-র ১৩ মে একটি টুইট বার্তায় প্রশ্ন ছুড়েছিলেন নরেন্দ্র মোদীকে।

২০১৩ সালের ২০২০-তে একইভাবে ভারতীয় সীমানায় ঢুকে পড়েছিল চিন। তা নিয়েই লাদাখে সীমান্ত সংঘর্ষ শুরু হয়। ১৫ জুন চিনা সেনাদের সাথে সংঘর্ষে মুখোমুখি হয়ে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হন। চিনও হতাহতের শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে, তবে জনগণের কাছে তার বিবরণ এখনও প্রকাশ করা হয়নি।

মঙ্গলবার, কংগ্রেস নেতা শশী থারুর নরেন্দ্র মোদীর ২০১৩-র টুইটকে রিটুইট করে লিখেছেন- "আমি এ নিয়ে মোদিজির উত্তরের আশায় রয়েছি। প্রধানমন্ত্রীকে তার প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে!" অনুরূপ টুইট করে রণদীপ সুরজেওয়ালা লিখেছিলেন, "শ্রদ্ধেয় প্রধানমন্ত্রী, আপনার সেই প্রশ্নের কথা মনে আছে? আপনি কি বলবেন কেন ভারতীয় বাহিনী তাদের নিজস্ব অঞ্চল থেকে সরে যাচ্ছে? দেশ তার উত্তর চায়।"

English summary
Senior Congress leaders Shashi Tharoor and Randeep Singh Surjewala dig out Prime Minister Narendra Modi. Congress says PM must answer his own question now that he raise in 2013.
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more