• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বিহারের নির্বাচনী লড়াই থেকে ওয়াকওভার সপা-র, আরজেডিকে সমর্থন করে বিজেপিকে প্যাঁচে ফেলার সঙ্কল্প

  • |

ইতিমধ্যেই বেজে গেছে বিহার ভোটের দামামা। অক্টোবর-নভেম্বরে ভোটের আগে তাই জোট নিয়ে ব্যস্ত শাসক বিরোধী দুই শিবির। চলছে শেষ মহূর্তের ঘুঁটি সাজানোর প্রস্তুতি। এরইমাঝে বড় ঘোষণা করল উত্তরপ্রদেশের প্রধান রাজনৈতিক দল তথা যোগী শিবিরের অন্যতম প্রধান প্রতিপক্ষ সমাজবাদী পার্টি।

আরজেডিকেই সমর্থন

আরজেডিকেই সমর্থন

ইতিমধ্যেই বিহারের নির্বাচনী লড়াইয়ের ময়দান থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে অখিলেশের দল। সোমবার মধ্যরাতে সমাজবাদী পার্টির অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে এই পোস্ট করা হয়। তবে আসন্ন বিহার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে হারাতে তারা লালুপ্রসাদ যাদবের রাষ্ট্রীয় জনতা দলকেই (আরজেডি) সমর্থন করবে বলেও জানা যাচ্ছে।

মাটি শক্ত না হওয়াতেই কি সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত ?

মাটি শক্ত না হওয়াতেই কি সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত ?

সোমবারের টুইট পোস্টে সমাজবাদী পার্টির তরফে সাফ জানানো হয়, "আসন্ন বিহার বিধানসভা নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টি কোনও দলের সাথেই জোটবদ্ধ হবে না। ভোটের ময়দানে সমস্ত আরজেডির প্রার্থীদেরই সমর্থন করা হবে সমাজবাদী পার্টির তরফে।" ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা এখনও বিহারের রাজনৈতিক ময়দানে বিশেষ শক্ত মাটি তৈরি হয়নি সমাজবাদী পার্টির। খুব সম্ভবত সেই কারণেই তারা নির্বাচনী লড়াই থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

শক্তিক্ষয় করতে রাজি নয় অখিলেশের দল

শক্তিক্ষয় করতে রাজি নয় অখিলেশের দল

এ কথা কার্যত স্বীকারও করে নিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সামাজবাদী এক বরিষ্ঠ নেতা। তার সাফ কথা, সমমনষ্ক কোনও রাজনৈতিক দলের ভোটবাক্সে হাতে দিতে, বা অহেতুক বিপাকে ফেলতে রাজি নয় সমাজাবাদী পার্টি। তাই তারা ভোচের ময়দান থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাশাাপাশি এখনও পর্যন্ত বিহারে সমাজবাদী পার্টির তরফে বিশেষ কোনও ছাপ ফেলা সম্ভব হয়নি। তাই এই মুহূর্তে বিহার ভোটযজ্ঞে শ্রম ও আর্থিক যোগান কোনটাই দিতে রাজি নন সমাজবাদী পার্টির নেতারা।

 কেমন ছিল ২০১৫ সালের ভোটের রসায়ন

কেমন ছিল ২০১৫ সালের ভোটের রসায়ন

এদিকে ২০১৫ সালের বিহার বিধানসভা নির্বাচনে মহাগাঁটবন্ধনের ছিল সামাজবাদী পার্টি। সেই সময় নীতীশ কুমারের জেডিইউ, লালুপ্রসাদের আরজেডি, কংগ্রেসের সাথে জোট করে অখিলেশ যাদবের দল। যদিও সেই সময় তাদের ২৪৩ টি আসনের মধ্যে তাদের মাত্র ৫টা আসন দেওয়া হয়। তারপরেই ওই জোট থেকে বেরিয়ে আসে সমাজবাদী পার্টি। এরপর এনসিপির সঙ্গে জোট বেঁধে ভোটে লড়লেও কোনও দলই একটিও আসন জিততে পারেনি।

'মার্শালরা না থাকলে হরিবংশজি...', কৃষি বিল নিয়ে সংসদের ঘটনা প্রসঙ্গে বিস্ফোরক গিরিরাজের

English summary
samajwadi party is not in the electoral battle in bihar akhilesh yadavs party will support only rjd
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X