• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ভারতীয় 'সার্ভে শিপে' উর্ধ্বতনকে মারধর নৌসেনার ৪ নাবিকের

নয়াদিল্লি, ১০ মার্চ : কর্তব্যরত অবস্থায় ভারতীয় নৌসেনার এক অফিসারকে মারধরের অভিযোগে ৪ নাবিককে 'সার্ভে শিপ' আইএনএস সন্ধ্যায়ক থেকে বহিষ্কৃত করা হয়। এর আগে, সার্ভে মোটরবোট সংক্রান্ত এক ঘটনায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ না মানার জন্য এই নাবিকদের শাস্তি দেওয়া হয়।

ঘটনারে জেরে ৪ জন নাবিককে ডেকে পাঠালে তাদের সোজা হয়ে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। সেভাবে না দাঁড়িয়ে একজন নাবিক উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অমর্যাদা করতে ঝুঁকে দাঁড়ায় বলে অভিযোগ। সেসময় সেই নাবিকের গায়ে হাত দিয়ে তাকে সোজা করে দাঁড় করাচ্ছিলেন এক অফিসার।

'সার্ভে শিপে' উর্ধ্বতনকে মারধর নৌসেনার ৪ নাবিকের,ঝামেলা থামাতে নামল হেলিকপ্টার

আর অফিসার গায়ে হাত রাখাতেই ওই নাবিক চরম চটে গিয়ে নৌসেনা অফিসারকে নিগ্রহ করে বলে অভিযোগ। এরসঙ্গে বাকি ৩ নাবিকও চড়াও হয় ওই নৌসেনা অফিসারের ওপর। জাহাজ যখন ওড়িশার পারাদ্বীপ উপকূলে ছিল তখনই এই ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

ঝামেলা বন্ধ করতে ছুটে আসেন নিরাপত্তা কর্মীরা। শুধুতাই নয় নাবিকদের 'সার্ভে শিপ' আইএনএস সন্ধ্যায়ক থেকে সরানোর জন্য নামাতে হয় হেলিকপ্টার। নৌসেনার তরফে ঘটনাকে নাবিকদের 'অবাধ্যতা' বলে দাবি করা হয়। নৌসেনার তরফে জানানো হয় কোনও রকমের অবাধ্যতা বরদাস্ত করেনা সেনা, তাইই ও ৪ নাবিককে বহিষ্কার করা হয়।

English summary
Four sailors of the Indian Navy have been removed from the survey ship INS Sandhayak after some of them assaulted an officer on board, in an incident off Paradip along the Odisha coast. According to sources, the sailors were pulled up for insubordination after they failed to carry out orders to pull the survey motor boats onboard. Security teams were called in and a helicopter was brought in to remove the sailors from the ship.
For Daily Alerts

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more