গুজরাতে মুসলমানদের বাড়ির দেওয়ালে লাল কাটা চিহ্ন, সাফাইয়ে কী বলল আহমেদাবাদ পুরসভা

  • Posted By:
Subscribe to Oneindia News

দু'দিন আগেই নয়া বিতর্ক শুরু হয় নরেন্দ্র মোদীর রাজ্যে। অভিযোগ, আহমেদাবাদের মুসলমান সম্প্রদায়ের বাড়ির বাইরের দেওয়ালে 'এক্স' বা কাটা চিহ্ন এঁকে গিয়েছে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিরা। সঙ্গে নানা পোস্টারে কটূক্তিও লিখে রাখা হয়েছে। যা নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে।

গুজরাতে মুসলমানদের বাড়ির দেওয়ালে লাল কাটা চিহ্ন, সাফাইয়ে কী বলল আহমেদাবাদ পুরসভা

২০০২ সালের দাঙ্গার পর ১৫ বছর কেটে গেলেও সেই স্মৃতি অনেকের মনেই এখনও তরতাজা। তাই সিঁদুরে মেঘ দেখেই অনেকে আঁতকে উঠেছিলেন। ফের সেই ভয়ানক স্মৃতি ফিরে আসবে না তো, মুসলমান পরিবারের অনেকেই সেই প্রমাদ গুণছিলেন। সেই ভয়ে অনেকে নির্বাচন কমিশনে, পুলিশ কমিশনারের কাছে নালিশ পর্যন্ত জানান।

তবে কেন কিছু বাড়ির দেওয়ালে কাটা চিহ্ন বা এক্স চিহ্ন লাগানো হয়েছে তা নিয়ে সাফাই দিয়েছে আহমেদাবাদ মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন। জানিয়েছে, ময়লা তোলার পিকআপ পয়েন্ট হিসাবে ওই কাটা চিহ্নগুলি বাড়ির দেওয়ালে এঁকে দিয়েছেন পুরকর্মীরাই।

গুজরাতে মুসলমানদের বাড়ির দেওয়ালে লাল কাটা চিহ্ন, সাফাইয়ে কী বলল আহমেদাবাদ পুরসভা

পুরসভার যুক্তি, ময়লা পরিষ্কারে জিপিএসের সাহায্য নেওয়া হচ্ছে। ওই পয়েন্টগুলিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। সেখানে ময়লা তোলা হল কিনা তা জিপিএসের মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করা হবে। তবে যেহেতু যারা ময়লা তুলবেন তারা ততোধিক শিক্ষিত নন, সেহেতু তাদের সুবিধার জন্য এক্স চিহ্ন আঁকা হয়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি দেওয়ালে।

সারা আহমেদাবাদে এমন ৪৮৪টি ময়লা পিক আপ পয়েন্ট তৈরি করা হয়েছে। ১৪টি গাড়ি ময়লা তুলবে। ফলে মুসলমানদের ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই বলেই আশ্বস্ত করা হয়েছে। বিতর্ক কানে আসার পরে লাল কাটা চিহ্ন সরিয়েও ফেলা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

English summary
Red cross marks were meant to be garbage pickup points, clarifies Ahmedabad Municipal Corporation ahed of Gujarat Assembly Elections 2017

Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more