• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

কমছে পেট্রোপণ্যের চাহিদা! দীর্ঘ লকডাউনের পাশাপাশি মূল্যবৃদ্ধিকেও কাঠগড়ায় তুলছেন বিশেষজ্ঞেরা

  • |

একটানা লকডাউনের জেরে গত কয়েকমাস থেকেই অর্থনৈতিক মন্দার নাগপাশে জর্জরিত গোটা দেশ। তারমধ্যে গত মাস থেকেই কয়েক দফায় অগ্নিমূল্য হয়েছে তেলের দাম। যার ছাপ পড়ছে মানুষের দৈনন্দিন জীবনেও। সূত্রের খবর, এমতাবস্থায় গোটা দেশব্যাপী অনেকটাই কমেছে পেট্রোল ও ডিজেলের চাহিদা। যার জেরে বড়সড় ঘাটতি দেখা দিয়েছে এই শিল্পে।

আর্থিক মন্দার জেরে চাহিদা কমছে পেট্রোপণ্যের

আর্থিক মন্দার জেরে চাহিদা কমছে পেট্রোপণ্যের

সূত্রের খবর, জুলাইয়ের প্রথমার্ধে জুনের এই সময়ের থেকে ডিজেলের চাহিদা কমেছে প্রায় ১৮ শতাংশ। পাশাপাশি পেট্রোলের চাহিদা কমেছে প্রায় ৬ শতাংশের কাছাকাছি। অন্যদিকে ২০১৯ সালের জুলাইয়ের প্রথমার্থে পেট্রোল ডিজেলের যা চাহিদা ছিল এই বছর তার অনেকটাই পতন হয় বলে জানা যাচ্ছে। সূত্রের খবর, গত বছর জুলাইয়ের সময়ের থেকে বর্তমানে ডিজেলের বিক্রি কমেছে প্রায় ২১ শতাংশ, পেট্রোলের ক্ষেত্রে ১২ শতাংশ।

কমেছে বিমানের জ্বালানির চাহিদাও

কমেছে বিমানের জ্বালানির চাহিদাও

এদিকে লকডাউনের শুরু থেকে স্তব্ধ হয়ে ছিল বিমান চলাচলও। সম্প্রতি আংশিক পরিষেবা শুরু হলেও যাত্রী চাহিদার অভাবে ধুঁকছে গোটা বিমান শিল্পই। এমতাবস্থায় দেখা যাচ্ছে বিমানের জ্বালানির চাহিদাও প্রায় ৬৭ শতাংশ কমে গেছে। পাশাপাশি অর্থনৈতিক মন্দার ছাপ গৃহস্থলীর ক্ষেত্রেও। গত বছরের থেকে চলতি বছরে রান্নার গ্যাসের চাহিদা এখনও পর্যন্ত ৭ শতাংশ কমেছে বলে জানা

লকডাউনের প্রভাবে বিপর্যস্ত অর্থনীতি

লকডাউনের প্রভাবে বিপর্যস্ত অর্থনীতি

এদিকে করোনা প্রাদুর্ভাবের জেরে এখনও দেশের বিভিন্ন শহর ও গ্রামাঞ্চলে স্থানীয় ভিত্তিতে লকডাউন চলছে। যারও সরাসরি প্রভাব পড়ছে স্থানীয় অর্থনৈতিক পরিসরে। এও দেখা যাচ্ছে গত বছর জুন থেকে এই বছর জুন পর্যন্ত পেট্রোপণ্যের চাহিদা অনেকাংশেই কমেছে। এই খাতে দেশজুড়ে ডিজেলের চাহিদা কমেছে প্রায় ১৭ শতাংশ। পেট্রোলের ক্ষেত্রে তা ১৫ শতাংশ।

মহামারীর মাঝে বাড়ি থেকে কাজ করায় রাস্তায় যানবাহন অনেকটাই সীমিত

মহামারীর মাঝে বাড়ি থেকে কাজ করায় রাস্তায় যানবাহন অনেকটাই সীমিত

এদিকে ৬ই জুন থেকেই জুন থেকে একাধিক তেল সংস্থাগুলি জ্বালানির দাম বাড়ানো শুরু করতেই তার প্রভাব সরাসরি বাজারের উপর পড়ে। গত একমাসে প্রতি লিটার পিছু ডিজেলর দাম বাড়ে প্রায় ১১ টাকা ৭৯ পয়সা পর্যন্ত। পাশাপাশি পেট্রোলের ক্ষেত্রেও ৯ টা ১৭ পর্যন্ত লিটার পিছু দাম বাড়তে দেখা যায়। বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন অনেক মানুষই বর্তমানে বাড়ি থেকে কাজ করছেন। যার জেরে রাস্তায় মানুষ কম থাকায় যানবাহনের পরিমাণও অনেকটাই কম। পাশাপাশি গোটা দেশে বর্ষা ঢুকে পড়ায় অনেক জায়গাতেই যান চলাচল অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। তাই অনেকটাই কমছে পেট্রোপণ্যের চাহিদা।

২১ জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সভা প্রসঙ্গে কি বললেন দিলীপ ঘোষ

মোদীর খোঁড়া অর্থনৈতিক গর্ত থেকে গরীবদের উদ্ধার করছে এমজিএনআরইজিএ, টুইট রাহুল গান্ধীর

English summary
petrol disel price decreasing demand fuel all over the country experts are taking the price hike to a halt along with the long lockdown
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X