• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

আত্মনির্ভর ভারতের লক্ষ্যে আরও একধাপ, চিনা রেশম আমাদানিতে নিষেধাজ্ঞার পথে ভারত

  • |

ক্রমেই জোরদার হচ্ছে চিন ভারত যুদ্ধ সম্ভাবনা। এদিকে জুনে গালওয়ান উপত্যকায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর ভারতীয় সেনা ও লালফৌজের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর থেকেই চিনকে অর্থনৈতিক ভাবে বয়কটের রাস্তায় হেঁটেছে ভারত। এমচাবস্থায় এবার চিন থেকে রেশম আমদানির ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা বসাতে চলেছে নয়া দিল্লি।

সেনা সংঘর্ষের রেশ ধরেই বয়কটের রাস্তায় ভারত

সেনা সংঘর্ষের রেশ ধরেই বয়কটের রাস্তায় ভারত

মে মাসের শুরুতেই গালওয়ান নদীর উপর বাঁধ তৈরিকে কেন্দ্র করে ভারত-চিন সংঘাতের সূত্রপাত। ভারতীয় ভূখণ্ড দখল করার অভিযোগ ওঠে লালফৌজের বিরুদ্ধে। জুনের মাঝামাঝি পিপলস লিবারেশন আর্মির সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা জওয়ানের মৃত্যুও হয়। তারপর থেকেই ক্রমেই চড়েছে উত্তেজনার পারদ।

আত্মনির্ভর ভারত গড়ার লক্ষ্যে আরও একধাপ

আত্মনির্ভর ভারত গড়ার লক্ষ্যে আরও একধাপ

এদিকে ইতিমধ্যেই একাধিক বাণিজ্য চুক্তি বাতিলের পাশাপাশি অসংখ্যা চিনা অ্যাপ বাতিল করেছে ভারত। তার মধ্যে রয়েছে জনপ্রিয় মোবাইল গেম পাবজি, ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটকও। এবার চিন থেকে আগাম রেশমের উপরেও নিষেধাজ্ঞা লাগাতে চাইছে ভারত। এদিকে ইতিমধ্যেই দেশীয় পণ্যের উৎপাদন ও বিক্রির উপর জোর দিতে আত্মনির্ভর ভারত গড়ার ডাক দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

রেশম উৎপাদনে গোটা বিশ্বে শীর্ষে চিন

রেশম উৎপাদনে গোটা বিশ্বে শীর্ষে চিন

ওয়াকিবহাল মহালের ধারণা অর্থনৈতিক ভাবে চিনকে পঙ্গু করার পাশাপাশি ভারতীয় রেশম শিল্পকে চাঙ্গা করতেই এই নয়া পথে হাঁটতে চাইছে কেন্দ্র। এর ফলে আগামীতে নতুন করে উজ্জীবিত হবে টেক্সটাইল সেক্টর। সোমবার শ্রম মন্ত্রকের স্থায়ী কমিটির কাছে এই সিদ্ধান্ত জানায় কেন্দ্র। এদিকে বিশ্বের বহত্তম রেশন উৎপাদনকারী দেশ হিসাবে ইতিমধ্যেই সুখ্যাতি রয়েছে চিনের। পাশাপাশি গোটা বিশ্বের অন্যতম প্রধান রেশম আমদানিকারক হিসাবে নাম রয়েছে ভারতেরও।

দেশীয় টেক্সটাইল শিল্পে ব্যবহৃত সিল্কের সুতোর ৮০ শতাংশই আসে চিন থেকে

দেশীয় টেক্সটাইল শিল্পে ব্যবহৃত সিল্কের সুতোর ৮০ শতাংশই আসে চিন থেকে

সূত্রের খবর, দেশীয় টেক্সটাইল শিল্পে যে সিল্কের সুতো ব্যবহার করা হয় তার ৮০ শতাংশই আসে চিন থেকে। বাকি ১০ শতাংশ আসে কর্নাটক থেকে। এবং অবশিষ্ট ১০ শতাংশ বিহার ও অসম থেকে। চিনের উচ্চমানের এক কিলো সিল্কের সুতোর দাম প্রায় সাড়ে তিন হাজার থেরে পাঁচ হাজার টাকা মতো কিলো। পাশাপাশি বেনারসি শাড়ি তৈরিতেও চিনা রেশমের আধিপত্য বিশেষ ভাবে লক্ষ্যণীয়। সরকারের বর্তমান সিদ্ধান্তকে অনেকি সাধুবাদ জানালে দেশীয় টেক্সটাইল শিল্পকে চাঙ্গা রাখতে আগামী এই উচ্চমানের বিপুল পরিমাণ রেশমের যোগন দেশীয় বাজারে কোথা থেকে আসবে তা ভাবেই চিন্তা বাড়ছে।

জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠকের আগে সমঝোতার বার্তা বেজিংয়ের, লাদাখের ফিঙ্গার ৪ থেকে সেনা সরানোর প্রস্তাব

English summary
one more step towards selfreliant india central government on the way to ban chinese silk imports
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X