• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    ৫০০ টাকার নোটে বাল্ব জ্বালিয়ে তাক লাগাল বালক, খোঁজ খবর নিচ্ছেন মোদী

    সরকারের নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের পর , ১০০০ টাকা ছাড়াও ৫০০ টাকার নোট নিয়েও হৈচৈ কম হয়নি। আর এবার সেই বাতিল ৫০০ টাকার ছেঁড়াখোড়া নোট দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে ফেলেছে ১৭ বছরের কিশোর লছমন দুন্দী। আর এই খবর পেয়ে ,প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে এই আবিষ্কার সংক্রান্ত সমস্ত নথি-তথ্য জানতে চেয়ে পাঠানো হয়েছে।

    ওড়িশার ভুবনেশ্বরের লছমন দুন্দী বর্তমানে খারিয়ার কলেজের ছাত্র। বাতিল পাঁচশো টাকার নোট দিয়ে সে ৫০০ ভোল্টেজ পর্যন্ত বিদ্যুৎ উৎপাদনের কৌশল আয়ত্ত করে ফেলেছে।

    বিস্ময় বালকের কামাল : ৫০০ টাকার নোট দিয়ে উৎপাদন হচ্ছে বিদ্যুৎ,জেনে নিন কীভাবে

    কীভাবে এই বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে , তা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে, লছমন জানায়, 'নোটের উপরের সিলিকন কোটিং ব্যবহার করে শক্তি উৎপাদন করা হচ্ছে। তার জন্য নোটগুলিকে ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে , যাতে কোটিং টা দেখা যায়। আর সেই কোটিং সে প্রত্যক্ষভাবে সুর্যের আলোতে ফেলে রাখা হয়। এরপর সিলিকন প্লেটটিকে একটি ট্রান্সফর্মারের সঙ্গে, একটি ইলেকট্রিক তার দিয়ে যুক্ত করা হবে। যার দ্বারা তৈরি হবে বিদ্যুৎ'।

    এদিকে, দুন্দীর এই আবিষ্কারে র যাবতীয় তথ্য চেয়ে খোঁজখবর নিতে শুরু করেছে ওড়িশার রাজ্য সরকার। লছমন দুন্দীর গোটা প্রকল্পের তথ্যও চেয়ে পাঠানো হয়েছে।

    English summary
    With the country reeling from a cash crisis post-demonetisation, a 17-year-old science student from Odisha's Nuapada district has devised a technique to generate electricity from scrapped Rs 500 notes. His innovation has now grabbed national attention, with the PMO directing the state science and technology department to submit a report regarding the project.
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more