India
  • search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts
Oneindia App Download

উদয়পুরকাণ্ডে নয়া মোড়, খুনিরা পাক চরমপন্থী সংগঠনের সদস্য

Google Oneindia Bengali News

মঙ্গলবার রাজস্থানের উদয়পুরে কানহাইয়া লাল নামে এক হিন্দু দর্জিকে হত্যাকারী দুই ব্যক্তি পাকিস্তান ভিত্তিক চরমপন্থী সংগঠনের সাথে জড়িত বলে জানা গিয়েছে। উদয়পুর হত্যাকাণ্ড ক্যামেরায় রেকর্ড করা হয় এবং ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়।

পাক চরমপন্থী সংগঠনের সদস্য

পাক চরমপন্থী সংগঠনের সদস্য

সাসপেন্ড করা বিজেপি নেতা নূপুর শর্মার মন্তব্যকে সমর্থন করে একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের কারণে কানহাইয়া লালকে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। জানা যাচ্ছে খুনি ওই দুই ব্যক্তি পাকিস্তান ভিত্তিক চরমপন্থী সংগঠনের সাথে জড়িত।

 কারা খুনি ?

কারা খুনি ?


খুনিরা - গৌস মহম্মদ এবং রিয়াজ আহমেদ। এরাই কানহাইয়া লালকে হত্যা করে তারপর হত্যার কথা স্বীকার করে এবং অন্য একটি ভিডিওতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে হুমকি দেয়। ১৭ জুন রেকর্ড করা তৃতীয় একটি ভিডিও মঙ্গলবার হত্যার পর উঠে আসে। সেই ভিডিওতে, দুজনের মধ্যে একজনকে মঙ্গলবার উদয়পুরে ঘটে যাওয়া ঘটনার মতো একটি কাজ করার তার উদ্দেশ্য বর্ণনা করতে শোনা যায়।

হত্যার পরে

হত্যার পরে

হত্যার পরে যে ভিডিওগুলি প্রকাশিত হয়েছিল তাতে কানহাইয়া লালের লাশ তার দোকানের বাইরে ফুটপাতে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। ব্যবসায়ী এবং হিন্দু সংগঠনগুলি ঘটনাস্থলে পৌঁছে কর্তৃপক্ষকে মৃতদেহ নিতে দিতে অস্বীকার করায় লাশ উদ্ধারে বিলম্ব হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তারা কানহাইয়া লালের পরিবারের জন্য আর্থিক সাহায্য এবং পরিবারের একজন সদস্যের জন্য সরকারি চাকরির দাবি জানিয়েছেন।

খুনের ঘটনা

খুনের ঘটনা


প্রকাশ্যে দিবালোকে দর্জির শিরশ্ছেদ করা হয় কানহাইয়ার এবং ঘটনাটি অভিযুক্তরা ভিডিও করে। পুলিশ জানায়, জামাকাপড়ের মাপ দেওয়ার অজুহাতে কানহাইয়ার দোকানে আসে অভিযুক্ত। দর্জি তাদের একজনের পরিমাপ নেওয়ার সময় - যে পরে নিজেকে রিয়াজ বলে পরিচয় দেয় - অন্যজন তাকে ক্লিভার দিয়ে আক্রমণ করে। অন্য ব্যক্তিও তার মোবাইল ফোনে হত্যাকাণ্ডের ভিডিও শুট করে। যুবককে খুন করে ওই দুই ব্যক্তি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় এবং পরে ক্লিপটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে।

অনলাইনে পোস্ট করা ভিডিও ক্লিপে, একজন হামলাকারী ঘোষণা করেছে যে তারা যুবকের শিরশ্ছেদ করেছে এবং তারপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে হুমকি দেয়। হামলাকারীরা পরোক্ষভাবে নূপুর শর্মাকেও উল্লেখ করেছে। ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজনা বেড়ে যায়। স্থানীয় বাজারের দোকানদাররা দোকানপাট বন্ধ দেয় এবং পুলিশকে মৃতদেহ নিয়ে যেতে বাধা দেয়, তারা বলে যে হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করতে হবে এবং ক্ষতিপূরণ ৫০ লক্ষ টাকা সহ একটি সরকারি চাকরি দিতে হবে। এসব করা হলে দেওয়া তবেই দেহ নিয়ে যেতে দেওয়া হবে।

English summary
the murderer of kanhailal is a member of Pakistani extremists group
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X