• search

দিল্লির 'যুব হুঙ্কার' মিছিল থেকে দলিত ইস্যুতে মোদীকে নিশানায় রেখে যা বললেন জিগনেশ

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    গুজরাতের নব নির্বাচিত বিধায়ক জিগনেশ মেভানির দিল্লির সভা ঘিরে পের আজ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে রাজধানী। নয়াদিল্লিতে তাঁর যুবা হুঙ্কার মিছিলের অনুমতি না থাকা সত্ত্বেও , সেখান থেকেই বিজেপি তথা মোদীকে নিশানায় রেখে তোপ দাগেন এই দলিত নেতা। তিনি বলেন , পার্লামেন্ট স্ট্রিটে সংগঠিত হতে চলা যুবা হুঙ্কার মিছিলের অনুমতি না দেওয়া হল গুজরাত মেডেলের রাজনীতির সামিল।

    দিল্লির 'যুব হুঙ্কার' মিছিল থেকে দলিত ইস্যুতে মোদীকে নিশানায় রেখে যা বললেন জিগনেশ

    মিছিলে জিগনেশ মেভানি বলেন, ১২৫ কোটির দেশ দেখছে যে একজনকে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। যদি নির্বাচিত বিধায়ককেই এভাবে কথা বলতে দেওয়া না হয়, তাহলে এটা অবশ্য়ই গুজরাত মডেলের রাজনীতি। এদিন, দলিত নেতা তথা ভিম আর্মির নেতা চন্দ্রশেখর আজাদকে মুক্ত করার দাবি জানান জিগনেশ। চন্দ্রশেখরকে উত্তপ্রদেশে দলিত বনাম ঠাকুর সংঘর্ষের জেরে গ্রেফতার করা হয় গত বছর। জিগনেশ ছাড়াও,এই সভায় উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার, উমর খালিদ শহেলা রাশিদ। জাগনেশ দাবি করেন, তিনি ও হার্দিক প্যটেল বার বার বিজেপি-র বিরুদ্ধে সরব হওয়াতেই তাঁদের নিশানা করা হচ্ছে।

    এছাড়াও এই জমায়েতে শিক্ষার অধিকার, কর্মসংস্থান, জীবনযাপন সহ একাধিক ইস্যুতে আলোচনা হয়। সভা মঞ্চ থেকে জিগনেশ ফের একবার সোচ্চার হন ভিমা কোরেগাঁও সংঘর্ষ নিয়ে। মোদীকে নিশানা করে তিনি এবিষয়ে বক্তব্য রাখার জন্য বলেন। পাশাপাশি রোহিত ভেমুলার মৃত্যু নিয়েও এদিন নয়াদিল্লিতে সোচ্চার হন জিগনেশ।

    English summary
    Newly-elected Gujarat MLA and Dalit leader Jignesh Mevani launched an attack against the ruling BJP in his address at the ‘Yuva Hunkar’ rally on Tuesday. Saying that the saffron party was irked because of its marginal win in the recently concluded Gujarat polls, Mevani said,

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more