• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

এইচআইভি সংক্রমনের নিরিখে সারা দেশে প্রথম স্থানে মিজোরাম

  • |

সম্প্রতি ইমিনো ডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস(এইচআইভি) বা একোয়ার্ড ইমিউন ডেফিসিয়েন্সি সিনড্রোমের(এইডস) সর্বাধিক প্রসারের ক্ষেত্রে দেশের প্রথম রাজ্যে পরিণত হয়েছে মিজোরাম। যা মিজোরাম প্রশাসনের কাছে নতুন উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে মিজোরাম স্টেট এইডস কন্ট্রোল সোসাইটির(এমএসএসিএস) একটি রিপোর্ট থেকে জানা যায় যে এই রাজ্যে প্রত্যহ এইচআইভি সংক্রান্ত প্রায় নয়টি ঘটনা ঘটে। অন্যদিকে অপর একটি রিপোর্টের সূত্র অনুযায়ী জানা যায় যে এই ভাইরাসের সংক্রমণ প্রবণতা যে রাজ্য গুলিতে সব থেকে বেশি সেই তালিকায় মিজোরাম শীর্ষ স্থানে রয়েছে (২.৪ শতাংশ)। তালিকায় পরবর্তী স্থান গুলিতে রয়েছে যথাক্রমে মনিপুর(১.৪৪শতাংশ) ও নাগাল্যান্ড (১.১৫ শতাংশ)।

এইচআইভি সংক্রমনের নিরিখে সারা দেশে প্রথম স্থানে মিজোরাম

মিজোরাম স্টেট কন্ট্রোল সোসাইটির কার্য নির্বাহী অধিকর্তা ড. লালথালেংলিনীর জানান এইচআইভি পজেটিভ কেস গুলি বিশ্লেষন করলে দেখা যাচ্ছে ২৫ থেকে ৩৪ বছর বয়সের যুবক যুবতীরা এই রোগ সংক্রমণের প্রবণতা সবথেকে বেশী। পাশাপাশি ৩৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সী পুরুষ ও নারীদের মধ্যেও এই রোগ সংক্রমনেরও যথেচ্ছ প্রবণতা দেখতে পাওয়া যায় বলে তার মত। এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেন ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সী তরুণ-তরুণীরাও বাদ যাচ্ছে না তালিকা থেকে। এই তিনটি বয়সের গ্রুপের ক্ষেত্রে এইচআইভি/এইডসের বিস্তারের হার যথাক্রমে ৪২.৩৮শতাংশ, ২৬.৪৬ শতাংশ এবং ২৩.০ শতাংশ।

এই রাজ্যে রাজ্যে বিপুল হারে এইচআইভির/এইডসের ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার প্রধান কারণ হিসাবে অসুরক্ষিত যৌন সংসর্গকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ। বর্তমানে এই রাজ্যে অসুরক্ষিত যৌন সংসর্গের মাধ্যেমে এই মারণ রোগ ছড়িয়ে পড়ার হার প্রায় ৬৭.২১শতাংশের ঘর ছুঁয়েছে। ১শতাংশের বেশি এই ভাইরাসের সংক্রমন হচ্ছে সমকামিতার কারণে। এছাড়াও সংক্রমিত সূঁচ ও ব্লেড ব্যবহারের কারণে প্রায় ২৮.১২ শতাংশ এইচআইভি ভাইরাসের সংক্রমন ঘটে বলে একটি বিশেষ রির্পোট মারফত জানা গেছে। ইতিমধ্যে এইচআইভির এই ব্যপক বৃদ্ধি রুখতে রাজ্যব্যাপী সচেতনতা গড়ে তোলার ডাক দিয়েছেন মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা। ১১ই অক্টোবর আইজলে এইডস বিষয়ে একটি সংবেদনশীল প্রচার অভিযানও করা হয়। অন্যদিকে ন্যাশান্যাল কন্ট্রোল অর্গানাইজেশনের(ন্যাকো) একটি তথ্য মারফত জানা যায় ২০১৭ সালে দেশজুড়ে প্রায় ৬৯,০০০ বেশি মানুষ প্রাণ হারায় এইডসের আক্রমনে। পাশাপাশি ন্যাকোর অপর একটি রিপোর্টে দেখা যায় আসাম, বিহার, ঝাড়খন্ড , হরিয়ানা, দিল্লি ও উত্তরাখন্ডে এইডসের কারণে মৃত্যুর সংখ্যা তাত্পর্যপূর্ণ ভাবে কমেছে।

English summary
Mizoram at the top in AIDS transmission
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X