• search

সমস্যার মধ্যেও পাকিস্তানের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে ভারত !

  • By Sritama Mitra
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    নয়াদিল্লি, ৯ ফেব্রুয়ারি : উরি হামলার পর থেকেই ভারত-পাক সীমান্তে চাপানোতর কিছু কম নেই। ক্রমাগত গুলির লড়াইয়ের মধ্যে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কাশ্মীরে পাক সীমান্তবর্তী গ্রামগুলো। এপর্যন্ত ভারত-পাক আক্রমণ পাল্টা আক্রণে শহীদ হয়েছেন ভারতীয় সেনার বহু জওয়ান । তবুও দু'দেশের মানবিক সমস্যার দিক গুলি সমাধান করতে পাকিস্তানের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক চায় ভারত। এমনটাই জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে।

    বুধবার সংসদে এক আবলোচনা পর্বে লিখিত প্রত্যুত্তরে কেন্দ্রীয় সরকারের এই মনোভাব ব্যক্ত করেন , বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। লোকসভার সেই পর্বে তিনি জানান, ২০১৫ পাঠানকোট পাক জঙ্গি হামলার পর থেকেই দু'দেশের মধ্যে আলোচনা পর্ব ধাক্কা খায়। ২০১৬ তেও সেই জঙ্গি আক্রমণ ক্রমাগত চালিয়ে গিয়েছে পাকিস্তান। যার ফলে ভারত-পাক শান্তি সম্পর্ক স্থাপন বাঁধা পায়।

     সমস্যার মধ্যেও পাকিস্তানের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে ভারত !

    দুশেরগুলির লড়াইয়ের পাশাপাশি ঠাণ্ডা লড়াই যখন অব্যহত তখন ,ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক খারাপ হয়ে যায়নি। গতকাল লোকসভায় এমনটাই দাবি করেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। দুটি দেশের মানুষের মানবিক আবেদনে সাড়া দিতেই পাকিস্তানের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে ভারত , বলে দাবি করেন তিনি।

    এছাড়াও তিনি জানান, ভারতের কূটনৈতিক চালে আন্তর্জাতিকমহল থেকে সন্ত্রাসবাদ বন্ধ রাখার বিষয়ে ক্রমাগত চাপ দেওয়া গিয়েছে পাকিস্তানকে। পাশপাশি কাশ্মীর ইস্যুকে আন্তর্জাতিক ইস্যুর তকমা দেওয়ার ক্ষেত্রে পাকিস্তানের চালও বানচাল করা গিয়েছে , ভারতে কূটনৈতিক কৌশলে। তবে, এদিন ফের একবার হুঁশিয়ারির সুরে বিদেশমন্ত্রী জানান, দুদেশের সার্বিক সম্পর্ক ফের ভালো হতে পারে যদি পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদ বন্ধ করে।

    English summary
    Kept in touch with Pak. despite problems says Sushma Swaraj.India intends to have good relations with Pakistan, the government said on Wednesday.The government used diplomatic channels to address humanitarian cases even as ties suffered last year.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more