• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

করোনা প্রকোপে জেরবার দেশ, এরই মাঝে এই রাজ্যে খুলতে চলেছে মন্দির-মসজিদ!

কর্নাটকে ১ জুন থেকে মন্দির, মসজিদ, গির্জা-সহ সমস্ত ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান খোলার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুমতি চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা। ইতিমধ্যে, এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও লিখেছেন তিনি।

ধর্মীয় স্থান খোলা নিয়ে ইয়েদুরাপ্পার বক্তব্য

ধর্মীয় স্থান খোলা নিয়ে ইয়েদুরাপ্পার বক্তব্য

ইয়েদুরাপ্পা আজ জানান, 'ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলি পুনরায় খোলার আগে আমাদের অনেকের থেকে অনুমতি নিতে হবে। সুতরাং, এখন সবটাই অপেক্ষার বিষয়। যদি আমরা অনুমতি পাই তাহলে ১ জুন থেকে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলি খোলা যাবে।'

লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর বন্ধ হয় মন্দির-মসজিদ

লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর বন্ধ হয় মন্দির-মসজিদ

মার্চে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর থেকে জমায়েত এড়াতে দেশের সমস্ত প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। লকডাউনের চতুর্থ দফায় গণপরিবহন, দোকান খোলার বিষয়ে ছাড় দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে কোনওরকম ছাড় দেওয়া হয়নি।

মন্দির খোলা হতে পারে বলে আশাব্যক্ত করেন মন্ত্রী

মন্দির খোলা হতে পারে বলে আশাব্যক্ত করেন মন্ত্রী

কিছুদিন আগে রাষ্ট্রমন্ত্রী কোটা শ্রীনিবাস পূজারি জুন থেকে মন্দির খোলা হতে পারে বলে নিজে আশা ব্যক্ত করেছিলেন। তাই বিজেপি শাসিত কর্নাটক এখনও পর্যন্ত লকডাউনের নিয়মের ক্ষেত্রে কোনও পরিবর্তন আনার আগে কেন্দ্রের অনুমতির অপেক্ষা করছে।

ধর্মীয় স্থান খোলা নিয়ে মন্ত্রীর বক্তব্য

ধর্মীয় স্থান খোলা নিয়ে মন্ত্রীর বক্তব্য

কয়েকদিন আগেই শ্রীনিবাস পূজারি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, সামাজিক দূরত্ব ও পরিচ্ছন্নতার কথা মাথায় রেখে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কিন্তু তারপরেও কর্নাটকে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলি বন্ধ। তাই এই বিষয়ে আলোচনার জন্য আগামীকাল কর্নাটকে মন্ত্রিসভার বৈঠক হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

ত্রাণ নিয়ে ক্যাগ রিপোর্ট হাতিয়ার দিলীপের, সস্তার রাজনীতি করি না মন্তব্য দিলীপের

English summary
karnataka cm BS Yedurappa writes to pm modi seeking permission to open religious places amid lockdown
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X