• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

    এই লেডি গোয়েন্দাকে কী চেনেন? এঁর কাহিনীতে মহিলারা গর্ববোধ করবেন

    ব্যোমকেশ বক্সী , শার্লক হোমস বা ফেলুদার গল্প-সিনেমা, আমাদের দেখা কিম্বা পড়া। কিন্তু তিনি বাস্তবের মহিলা 'শার্লক হোমস'। তিনি রজনী পণ্ডিত। ভারতের অন্যতম নামী গোয়েন্দা । গোয়েন্দা হিসাবে সমাধান করেছেন বেশ কিছু বড়সড় 'কেস'। কিন্তু এতজনের এত সমস্যা সমাধানের পর , এখন তিনি নিজেই এক গুরুত্বপূর্ণ সমস্যায় পড়েছেন।

     এই লেডি গোয়েন্দাকে কী চেনেন? এঁর কাহিনীতে মহিলারা গর্ববোধ করবেন

    রজনী পণ্ডিতের দাবি , প্রাইভেট ডিটেক্টিভদের সরকারিভাবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়না। সে নিয়ে ২০০৭ সাল থেকে এই সংক্রান্ত বিল পাশ হওয়ার আসায় রয়েছেন তিনি । তার খুব শিগিগির সমাধান চাইছেন তিনি। সরকারি ভাবে , প্রাইভেট ডিটেক্টিভদের এদেশে স্বীকৃতি না পাওয়ার ফলে, গোয়েন্দা হিসাবে তাঁরা আটকে পড়েন বৈধতা আর অবৈধতার বেড়াজালে।

    ভারতের অন্যতম গর্ব, ৫০ বছর বয়সী এই মহিলা গোয়েন্দা রজনী পণ্ডিতের দাবি লাইসেন্ট না থাকার দরুন তাঁদের কাজের ক্ষেত্রে খুবই সমস্যা হয়ে থাকে। তাঁদের প্রায়ই পুলিশি হেনস্থার সম্মুখীন হতে হয়। তাই এদেশে প্রাইভেট ডিটেক্টিভদের একটি নির্দ্দিষ্ট পদ্ধতির মধ্যে দিয়ে চলার পথ যেন সরকার সহজ করে দেন, তারই আবেদন জানাচ্ছেন এই মহিলা।

    English summary
    But Rajani Pandit rues that while the fictitious British spy is "licensed to kill", she and her ilk have to operate without a licence. Her complaint is that private detectives are not recognised by the government even as related legislation is pending since 2007. Without a regulatory law and government recognition, she says, her ilk often treads a thin line between legality and illegality.
    For Daily Alerts

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    Notification Settings X
    Time Settings
    Done
    Clear Notification X
    Do you want to clear all the notifications from your inbox?
    Settings X
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more