• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

লাদাখে চিনের দুরভিসন্ধি! প্যাংগংয়ে পিছু না হটার প্রতিজ্ঞা করে বেজিংকে কড়া বার্তা ভারতের

লাদাখের সীমান্তে বেড়ে চলা উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতিকে শান্ত করতে বসেছিল কোর কমান্ডার পর্যায়ের ভারত-চিন পঞ্চম বৈঠক। সেনা প্রত্যাহার নিয়ে চিনের সঙ্গে এই বৈঠকেও কোনও সুরাহা সূত্র বের করতে পারল না ভারত। কারণ চিন তাদের দাবিতে অনড়। তাদের বক্তব্য, লাদাখ থেকে আরও ভারতীয় সেনা প্রত্যাহার করতে হবে দিল্লিকে। তবে চিনের এহেন প্রস্তাবকে পত্রপাঠ নাকচ করে দেয় ভারত।

চিনের দাবি উড়িয়ে দেয় ভারত

চিনের দাবি উড়িয়ে দেয় ভারত

চিন এর আগে জানিয়েছিল যে বিগত ১৪ সপ্তাহ ধরে সীমান্তে যে সংঘাতপূর্ণ পরিস্থিতি বিরাজ করছে, তা শেষ করতে হলে ভারতকে পূর্ব লাদাখের আরও কিছু এলাকা থেকে সেনা সরাতে হবে। বিশেষ করে প্যআংগং এলাকা থেকে ভারতীয় সেনা হটানর উপর বিশেষ জোর দেয় চিন। ফলে ডিসএনগেজমেন্ট প্রক্রিয়া আরও বাড়াতে হবে। যা মেনে নেয়নি ভারত। ভারত সাফ জানিয়ে দিয়েছে, লাদাখের বুক থেকে আর সেনা সরাতে পারবে না দিল্লি। সেনা সরানোর প্রস্তাবও অসমর্থনীয়।

বৈঠকে কোনও সুরাহা বের হয়নি

বৈঠকে কোনও সুরাহা বের হয়নি

রবিবার হাইভোল্টেজ বৈঠক ছিল মলডোতে। সেখানে প্রায় ১০ ঘণ্টা ধরে চলে পঞ্চম দফার সেনা স্তরের এই বৈঠক। যার ফলে, আশার আলো দেখেছিল অনেকেই। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। মনে করা হচ্ছে মলডোর বৈঠকের পর এবার চিন ভারত কূটনৈতিক স্তরে আরও একটি বৈঠক হবে। সেখানে যদি কোনও সুরাহা বেরিয়ে আসে।

গ্রিন টপের উপর থেকে চিনা সেনা দখলদারি

গ্রিন টপের উপর থেকে চিনা সেনা দখলদারি

লাদাখের প্যাংগং হ্রদের কাছে গ্রিন টপের উপর থেকে চিনা সেনা দখলদারি সরাতে না চাওয়াতেই ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক আরও তিক্ত হচ্ছে চিনের। জানা গিয়েছে রবিবার মোলডোতে অনুষ্ঠিত ভারত-চিন বৈঠকেও দিল্লির পক্ষ থেকে পিএলএ-কে সেখান থেকে সেনা প্রত্যাহারের জন্য বলা হয়। তবে চিনা সেনা এই বিষয়ে একগুঁয়ে মনোভাব পোষণ করছে। আর এতেই আরও পারদ ছড়ছে সীমান্তে।

চিনা সেনা এখনও অবস্থান করছে প্যাংগংয়ে

চিনা সেনা এখনও অবস্থান করছে প্যাংগংয়ে

হটস্প্রিং থেকে সরে গেলেও চিন এখনও অবস্থান করছে প্যাংগংয়ে। সেখানকার গ্রিন টপ থেকে ভারতের গতিবিধর উপর নজর রাখছে ভারতীয় গতিবিধির উপর। লাদাখে ভারত-চিন উত্তেজনা কমার কোনও নাম নেই। যেই প্যাংগং সো নিয়ে এত বিতর্ক, সেখানে চিনা সেনারা ফিঙ্গার ৫ এ ফিরে এসেছিল, তবে তারা এখনও ফিঙ্গার ৪-এর রিজলাইন দখল করে রয়েছে। চিনা সেনারা ফিঙ্গার ৪ থেকে ফিঙ্গার ৮-এর মধ্যকার ৮-কিলোমিটার দীর্ঘ এলাকাজুড়ে তাদের তৈরি কাঠামোগুলিকেই এলএসি বলে দাবি করে যাচ্ছে এখনও।

ভারত-চিন বিবাদের সূত্রপাত

ভারত-চিন বিবাদের সূত্রপাত

টহলদারী সীমান্ত নিয়ে বরাবরই ভারত ও চিনের মধ্যে চাপা উত্তেজনা ছিল। ভারত বিশ্বাস করে 'ফিঙ্গার ১' থেকে 'ফিঙ্গার ৮' পর্যন্ত টহল দেওয়ার অধিকার রয়েছে তাদের এবং চিন মনে করে যে 'ফিঙ্গার ৮' থেকে 'ফিঙ্গার ৪' পর্যন্ত টহল দেওয়ার অধিকার রয়েছে তাদেরই। ১৫ জুন, এই 'ফিঙ্গার ৪' এলাকাতেই উভয় পক্ষের সেনার মধ্যে সহিংস সংঘর্ষ বাঁধে। 'ফিঙ্গার ৪'-এ এই জন্যেই উল্লেখযোগ্য হারে সেনার সংখ্যা বাড়িয়েছিল চিন যাতে ভারতীয় সেনারা আর 'ফিঙ্গার ৮' এর দিক দিয়ে টহল দেওয়ার সুযোগ না পায়।

English summary
India not to retreat from Pangong Tso as per China's demand, sends clear message to Beijing
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X