• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

গত আট বছরে ভারতে বিভিন্ন কারণে মোট ৭৫০টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে, শীর্ষে মধ্যপ্রদেশ

কেরলে নির্মমভাবে গর্ভবতী হাতির মৃত্যুর পর দেখা গিয়েছিল যে দেশে ধীরে ধীরে হাতির সংখ্যা হ্রাস পেতে শুরু করেছে। তবে শুধু হাতি নয়, এই তালিকায় রয়েছে দেশের জাতীয় পশু বাঘও। সরকারিভাবে জানা গিয়েছে, চোরা শিকারি ও অন্যান্য ঘটনায় গত আট বছরে ভারতে ৭৫০টিরও বেশি বাঘ মারা গিয়েছে। যার মধ্যে মধ্যপ্রদেশে সবচেয়েবেশি সংখ্যক ১৭৩টি বাঘ মারা যায়।

বিভিন্ন কারণে বাঘেদের মৃত্যু এ দেশে

বিভিন্ন কারণে বাঘেদের মৃত্যু এ দেশে

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, মোট মৃত বাঘেদের মধ্যে প্রাকৃতিক কারণে মৃত্যু হয়েছে ৩৬৯ টি বাঘের, ১৬৮টি চোরা শিকারিদের হাতে, ৭০টি বাঘের মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং ৪২টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে দুর্ঘটনা বা সংঘর্ষ সহ অস্বাভাবিক কারণে। জাতীয় ব্যাঘ্র সংরক্ষণ সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে ২০১২ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে ১০১টি বাঘকে বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ পাকড়াও করেছে।

 এনটিসিএ আট বছরের তথ্য দিয়েছে

এনটিসিএ আট বছরের তথ্য দিয়েছে

২০১০ থেকে ২০২০ সালের মে মাসের মধ্যে এনটিসিএকে বাঘের মৃত্যুর বিবরণ জানাতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তারা শুধু আট বছরের তথ্য দিয়েছে যা ২০১২ থেকে শুরু হয়। পরিবেশ, অরণ্য ও আবহাওয়া পরিবর্তন মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর গত বছরের ডিসেম্বরে জানিয়েছিলেন যে দেশে দেশে বাঘেদের জনসংখ্যা গত চার বছরে ৭৫০টি বেড়ে ২,২২৬ থেকে ২,৯৭৬টি হয়েছে। তিনি রাজ্যসভায় এক প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেন, ‘‌বর্তমানে বাঘের সংখ্যা ২,৯৭৬টি। আমাদের পরিবেশগত ব্যবস্থার ওপর গর্ববোধ করা উচিত। গত চার বছরে বাঘের সংখ্যা ৭৫০টি বেড়েছে।'‌

মধ্যপ্রদেশে সবচেয়ে বেশি বাঘের মৃত্যু হয়েছে

মধ্যপ্রদেশে সবচেয়ে বেশি বাঘের মৃত্যু হয়েছে

এই সময়কালে মধ্যপ্রদেশে সবচেয়ে বেশি ১৭৩টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে। চোরা শিকারিরদের হাতে ৩৮টি, ৯৪ জন বাঘের প্রাকৃতিক মৃত্যু, ১৯টির মৃত্যু নিয়ে তদন্ত চলছে, ছটি বাঘের মৃত্যু অস্বাভাবিক ও ১৬টিকে পাকড়াও করা হয়েছে। দেশের মধ্যে মধ্যপ্রদেশে রয়েছে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বাঘ ৫২৬টি।

বাঘের মৃত্যুতে দ্বিতীয় স্থানে মহারাষ্ট্র

বাঘের মৃত্যুতে দ্বিতীয় স্থানে মহারাষ্ট্র

এই সময়ে মহারাষ্ট্রে বাঘের মৃত্যুতে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। এ রাজ্যে ১২৫টি বাঘের মৃত্যু হয়। এরপর কর্নাটকে ১১১টি, উত্তরাখণ্ডে ৮৮টি, তামিলনাড়ু ও অসমে ৫৪টি করে, কেরল ও উত্তরপ্রদেশে ৩৫টি করে, ১৭টি রাজস্থানে, ১১চি বিহারে ও ১০টি পশ্চিমবঙ্গ ও ছত্তিশগড়ে। ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশে সাতটি করে, পাঁচটি বাঘের মৃত্যু হয়েছে তেলেঙ্গানায়, নাগাল্যান্ড ও দিল্লিতে ২টি করে এবং অন্ধ্রপ্রদেশ, হরিয়ানা ও গুজরাতে একটি করে বাঘের মৃত্যু হয়েছে।

বন্যপ্রাণীরা কর্মীরা উদ্বিগ্ন বাঘেদের মৃত্যু নিয়ে

বন্যপ্রাণীরা কর্মীরা উদ্বিগ্ন বাঘেদের মৃত্যু নিয়ে

চোরাশিকারিদের হাতে মহারাষ্ট্র ও কর্নাটকে ২৮টি বাঘের মৃত্যু হয়, অসমে ১৭, উত্তরাখণ্ডে ১৪, তামিলনাড়ুতে ১১, কেরলে ৬ ও রাজস্থানে ৩টি বাঘের মৃত্যু হয়। তবে এনটিসিএ এই বাঘ মৃত্যুর মামলায় আদৌও কোনও ব্যবস্থা নিয়েছে কিনা সে বিষয়ে স্পষ্ট নয়। দেশের নিখোঁজ বাঘেদের সম্পর্কেও এনটিসিএ-এর কাছে কোনও তথ্য নেই। বন্যপ্রাণী কর্মীরা ৭৫০টি বাঘের মৃত্যু নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এবং বন্যপ্রাণ আইন আরও কঠোর করা দরকার এবং দোষীদের শাস্তি হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন তাঁরা। ভোপালের বন্যজীবন কর্মী অজয় দুবে বলেছেন, ‘‌এটি অত্যন্ত উদ্বেগের বিষয় যে এত বড় সংখ্যক বাঘ চোরা শিকার এবং অন্যান্য কারণে মারা গিয়েছে। বন্যজীবন অপরাধে দোষী ব্যক্তিদের জন্য কঠোর শাস্তির বিধান থাকা দরকার।' তিনি জানিয়েচেন, শিকারীদের হাত থেকে বাঘদের বাঁচাতে সংরক্ষণের প্রচেষ্টা ত্বরান্বিত করা দরকার

পেট্রোপোল থেকে তৃণমূল মোটা টাকা আমদানি করছে, ঘুষের টাকা যাচ্ছে কোথায়? প্রশ্ন রাহুলের

করোনার সঙ্কটের জের, ভরা মরসুমেও দার্জিলিংয়ে পর্যটন শিল্পে ৩৫০ কোটির ক্ষতির আশঙ্কা

English summary
in the last eight years a total of 750 tigers have died in india due to various reasons
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X