• search

'বেকার যুবকরা অবসাদে ধর্ষণ করে', রেওয়ারিকাণ্ড নিয়ে মুখ খুললেন বিজেপি নেত্রী

Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    সিবিএসই-র প্রথমস্থানাধিকারী ছাত্রীর গণধর্ষণের ঘটনায়শুক্রবার থেকে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা হরিয়ানায়। ধর্ষণের মতো ঘৃণ্য ঘটনার অভিযোগ জানাতে গিয়েও বিভিন্ন ধরনের পুলিশি হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে ওই পড়ুয়ার পরিবারকে। যে হরিয়ানার রেওয়ারির এই ঘটনা ঘিরে রীতিমত ক্ষোভের মুখে পড়েছে সেখানের বিজেপি সরকার। আর রেওয়ার কাণ্ড নিয়ে এবার মুখ খুলেন বিজেপির-ই এক মহিলা বিধায়ক।

    বেকার যুবকরা অবসাদে ধর্ষণ করে, রেওয়ারিকাণ্ড নিয়ে মুখ খুললেন বিজেপি নেত্রী

    হরিয়ানার বিজেপি বিধায়ক প্রেমলতার দাবি, যে সমস্ত বেকার যুবকরা অবসাদে ভুগে ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটিয়ে থাকে।

    উল্লেখ্য,বিজেপি বিধায়কের এমন বক্তব্য ঘিরে বহু মহল থেকেই প্রশ্ন উঠছে। তাছাড়াও নারী নিরাপত্তা নিয়ে হরিয়ানার বিজেপি সরকারের দায়িত্ববোধ নিয়ে আরও বড় সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এদিকে, রাষ্ট্রপতিপদকপ্রাপ্ত ওই ছাত্রীর গণধর্ষণে ১২ জন অভিযুক্ত। অভিযুক্তদের খবর যিনি দিতে পারবেন, তাঁকে ১লাখ টাকার পুরস্কার দেওয়া হবে বলেও ঘোষণা করেছে হরিয়ানা পুলিশ।

    [আরও পড়ুন: বাবার বিরুদ্ধে মেয়ে! ২০১৯ লোকসভা ভোটে রামবিলাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আশা]

    জানা যায়,কোচিং সেরে ফেরার পথে ওই পড়ুয়াকে অবহপণ করে ক্ষেতের মধ্যে টেনে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করা হয়। ঘটনার অভিযোগ জানাতে গেলে রেওয়ারি পুলিশ তা প্রথমে গ্রহণ করেত অস্বীকার করে। পরে অবশ্য বহু টালবাহানর পর সেই অভিযোগ গৃহিত হয়।

    [আরও পড়ুন: তেলাঙ্গানায় কার দিকে পাল্লা ভারী, কী বলছে ইন্ডিয়া টুডে সমীক্ষা]

    [আরও পড়ুন: তেলাঙ্গানায় প্রচার যুদ্ধে নামলেন অমিত শাহ, প্রথমেই নিশানায় কেসিআর ]

    English summary
    A teenage girl was kidnapped on Saturday from a bus stand in the Mahendragarh, taken to a house at Naya Gaon in Rewari and was allegedly raped by at least 12 men. Commenting on the horrific gangrape, BJP MLA Premlata from Haryana’s Uchana Kalan said youth who do not have employment get frustrated and commit such crimes.

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more