• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

কেন্দ্রীয় বাজেট ২০২০: ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের বিকাশে বিশেষ জোর

কেন্দ্রীয় বাজেট ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উপর বিশেষ গুরুত্বের কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। আন্তর্জাতিক মূদ্রা তহবিলের প্রধান অর্থনীতিবিদ গীতা গোপীনাথও জানিয়েছিলেন ভারতের আর্থিক অবস্থার পুণরুজ্জীবনে অত্যন্ত জরুরি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসার। বাজেট অধিবেশনেও সেদিকেই আলোকপাত করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারে হাত খুলে সুবিধার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

বাড়তি ঋণ দানে উৎসাহ

বাড়তি ঋণ দানে উৎসাহ

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের বিকাশে বাড়তি ঋণদানের প্রস্তাব দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। ২০২১ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে এই বিষয়ে আরবিআইকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে। ঋণের পরিমাণ বাড়লে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে বিনিয়োগ বাড়বে। ৯০০ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ দানেক সম্ভবনার কথা জানিয়েছে সরকার। তবে সীমিত ক্ষেত্রেই এই ঋণ দান করা হবে। যেমন ওষুধ ও অটো মোবাইল েক্ষত্রে প্রযুক্তিগত উন্নয়নের জন্য এই বাড়তি ঋণ দেওয়ার কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক।

বার্ষিক আয় বৃদ্ধির সীমা বাড়ল

বার্ষিক আয় বৃদ্ধির সীমা বাড়ল

ক্ষুদ্র ও অতিক্ষুদ্র শিল্পের ক্ষেত্রে বার্ষিক আয় বা লভ্যাংশ বৃদ্ধির সীমা ১ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া যাবে বলে জানিয়েেছন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। শুধু তাই নয় এই ক্ষুদ্র মাঝারি শিল্পের কর্মীদের উপর করের বোঝাও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। পাঁচ বছর পর্যন্ত এই ছাড়ে সুবিধা পাবে কোম্পানিগুলি।

 আর্থিক বিকাশে বাড়তি গুরুত্ব

আর্থিক বিকাশে বাড়তি গুরুত্ব

দেশের আর্থিম মন্দা কাটাতে এখন একমাত্র মাঝারি ও ক্ষুদ্র শিল্পগুলিই দিশা দেখাতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ টানতেই এই ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প সুযোগ তৈরি করবে। এছাড়া কর্মসংস্থান তৈরি করার ক্ষেত্রেও এদের জুড়ি নেই। সব ভেবেই মোদী সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

English summary
Government take Several initiatives on Medium and small business
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X