• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ভারত-লাদেশের পণ্যবাহী ট্রেন চালু হল পেট্রাপোল সীমান্তে

  • |

করোনা আতঙ্ককে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার পর করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই চালু হল ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেন পরিষেবা। এদিন প্রাথমিকভাবে বনগাঁর বেনাপোল পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে ৫০ টি কন্টেইনার নিয়ে একটি ট্রেন দিয়ে বাংলাদেশে যায়।

ভারত-লাদেশের পণ্যবাহী ট্রেন চালু হল পেট্রাপোল সীমান্তে

জানা গিয়েছেন, স্বাধীনতার পর থেকে বন্ধ ছিল এই ট্রেন চলাচল। সাম্প্রতিক দুই দেশের রেলওয়ের যৌথ ব্যবস্থাপনায় এই ট্রেন চলাচলের সিদ্ধান্ত নেয়। পণ্য পরিবহনের এই বিরাট পরিমাণ সাফল্য দেখে বাংলাদেশ রেলওয়ে ভারতের মধ্যে পার্সেল ট্রেন পরিষেবা শুরুর অনুমতি দেয়। আর এর মধ্যেই শুরু হয়েছে এই পণ্যবাহী ট্রেন পরিষেবা।

শুল্ক দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মূলত এই কন্টেইনার গুলিতে রয়েছে টেক্সটাইল ও কসমেটিকস এর মাল। আমদানি কারি সংস্থা মনে করছেন এই পথে ঝামেলা ও সময় খুব কম লাগবে। এছাড়াও ভারত বাংলাদেশ মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে বলে বলেও মনে করা হচ্ছে। এদিন সকালে ট্রেনটি ভারত বাংলাদেশ সীমান্তের পেট্টাপোল স্টেশনে এসে পৌঁছায়। সেখানে কাস্টম ক্লিয়ারেন্সের পরে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় ট্রেনটি।

সড়কপথে পরিবহণের জন্য যে টাকা খরচ হত এমনকী, একসঙ্গে বিপুল পরিমাণ পণ্য সরবরাহ করা যেত না। স্বাভাবিকভাবে প্রত্যেকবার পরিবহণের জন্য খরচও সমান হারে বাড়ত। লকডাউনের সময় গুন্টুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকার চাষীরা সড়কপথে বহু পণ্য বাংলাদেশে পাঠাতে পারেনি। যদিও ব্যাপক চাহিদা ছিল সুগুলোর। এই অবস্থায় রেল কর্মী ও আধিকারিকরা কৃষক প্রতিনিধি ও ব্যবসায়ীদের সাথে রেল পথে পণ্য পাঠানোর কথা বলেন। যাতে খুশি ব্যবসায়ী থেকে কৃষক দুই দেশের হাই কমিশনও।

জানা গিয়েছে, মাঝেরহাট স্টেশন থেকে পন্য বোঝাই হয়েছে। বেনাপোলে পন্য নামানো হবে। আগামী দিনে ট্রেন সংখ্যা ও বগি সংখ্যা বাড়িয়ে বাংলাদেশের যশোর-খুলনা পর্যন্ত নেওয়ার চিন্তাভাবনা রয়েছে আমদানিকারী সংস্থার।

এবিষয়ে কাস্টমসের অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার মিহির কুমার চন্দ্র বলেন, প্রচেষ্টা দীর্ঘদিনের এই ছিল আজ প্রাথমিকভাবে একটি ট্রেন বাংলা গেল। এতে বাণিজ্যিক সুবিধা হবে তেমনি ভারত-বাংলাদেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো দীড় হবে।

যদিও তাতে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন পেট্টাপোল ক্লিয়ারিং এজেন্টরা। তারা মনে করছেন সড়কপথে জায়গায় যদি রেলপথে আমদানি রপ্তানির কাজ শুরু হয় তাহলে কর্মহীন হয়ে পড়বেন লক্ষাধিক মানুষ।

'ভূমি পূজোয় রঞ্জন গগৈ আমন্ত্রণ না পেলে বড় অবিচার হবে’, রাম মন্দির ইস্যুতে খোঁচা অধীরের

English summary
Freight Trains between Bangladesh and India starts sercive amid Coronavirus scare and Lockdown
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X