• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ভারত-ইংল্যান্ড দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে জোর! প্রজাতন্ত্র দিবসে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ মোদীর

  • |

আমেরিকার পর এবার ব্রিটেনের সাথেও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে জোর দিচ্ছে ভারত। সূত্রের খবর, আগামী বছরের প্রজাতন্ত্রে দিবসে মুখ্য অতিথি হতে চলেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। রিপাবলিক প্যারেডে আসার জন্য তাকে ইতিমধ্যে সরকারি ভাবে আমন্ত্রণও জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, মোদীর ডাকে সাড়া দিয়ে যদি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী আগামী বছরের প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে আসেন তবে ভাঙবে বিগত প্রায় তিন দশকের রেকর্ড।

ভারত-ইংল্যান্ড দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে জোর! প্রজাতন্ত্র দিবসে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ মোদীর

এদিকে প্রায় ২০০ বছর ব্রিটিশ শাসনের নাগপাশে বন্দি থাকার পর ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতার স্বাদ পায় ভারত। তারপর ১৯৫০ সালের ২৬ জানুযারী প্রথম কার্যকরী হয় ভারতীয় সংবিধান। ওিদিনই প্রথম উদযাপিত হয় ভারতের প্রজাতন্ত্র দিসব। তারপর গঙ্গা আর যমুনা দিয়ে বয়ে গিয়েছে অনেক জল। সরকারি সূত্র বলছে, এর আগে ১৯৯৩ সালেই শেষবার ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে আসেন কোনও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

অন্যদিকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, নয়া কূটনৈতিক চাল দিতেই বরিসকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ভারত। কারণ এর আগে আগামী বছর জি-৭ সামিটে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বরিস জনসন। তারাই পাল্টা সৌজন্য খাতিরে এবার ব্রিটিনের প্রধানমন্ত্রী আমন্ত্রণ করলেন মোদী। এদিকে ইতিমধ্যেই মুক্ত বাণিজ্য নিয়েও বরিস-মোদীর মধ্যে দীর্ঘসময় ধরে গঠনমূলক আলোচনা হয়েছে। পাশাপাশি করোনা মোকাবিলাতেও দুই দেশই কাঁধে কাঁধ মিলেয়ে লড়াইয়ে অঙ্গীকারবদ্ধ হয়েছে।

English summary
Emphasis on India-England bilateral relation! British Prime Minister Boris Johnson invited on Republic Day
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X