• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

আগামী ৬ দিনেই দেশে ১০ হাজার ছাড়াতে পারে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা!

মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে দেশে নতুন করে প্রায় ১২০০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন আর এর জেরে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪০০০ ছাড়িয়ে ক্রমেই ৫০০০-এর দিকে যাচ্ছে। এখনও পর্যন্ত দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪,২৮৮। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রবিবার নতুন করে ৭০০ জন করোনাতে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত হয়ে মোট ১১৭ জনে

প্রবণতা অব্যহত থাকলে কী হবে...

প্রবণতা অব্যহত থাকলে কী হবে...

দেশে করোনা সংক্রমণের এই প্রবণতা অব্যহত থাকলে আগামী ৬ দিনের মধ্যে এই মারণ ভাইরাসে দেশের ১০,০০০ মানুষের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। সেক্ষেত্রে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে হাসপাতালগুলিতে করোনা রোগী উপচে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কোন রাজ্যে কতজন আক্রান্ত?

কোন রাজ্যে কতজন আক্রান্ত?

দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনাতে আক্রান্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। সেখানে ইতিমধ্যেই মোট ৭৪৮ জন সংক্রামিত হয়েছেন। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। আক্রান্তের সংখ্যায় এরপর রয়েছে কেরল (৩১৪), তেলেঙ্গানা (২৭২), উত্তরপ্রদেশ (২৭৬), অন্ধ্রপ্রদেশ (২৫২) এবং রাজস্থান (২১০)। দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে মহারাষ্ট্রে। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ৪৫ জনের। এর পরেই রয়েএছ মধ্যপ্রদেশ (১৩), গুজরাত (১১) ও তেলেঙ্গানা (১১)।

করোনা নীতিতে বদল

করোনা নীতিতে বদল

করোনা ভাইরাসের থাবা দেশের উপর প্রবল ভাবে পড়তেই নীতিতে বদল আনতে চলেছে কেন্দ্র। গুরুতর ভাবে অসুস্থ না হলে করোনা আক্রান্তকে হাসপাতালে না রাখার কথা ভাবা হচ্ছে বলে সরকারের একটি সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে। আর এতেই বিভিন্ন মহলে উঠেছে প্রশ্ন।

কী ভাবছে কেন্দ্র?

কী ভাবছে কেন্দ্র?

দেশে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ৪ হাজার ছাড়াতেই সরকার ভাবছে যে হালকা উপশম আছে এমন রোগীদের হাসপাতালের পর্যবেক্ষণে না রেখে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে বাড়িতেই আইসোলেশনে রাখা হোক।

র মৃত্যু হয়েছে।

English summary
coronavirus affected number can mount upto 10 thousands in next six days
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more