• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ভারতে করোনা-সংকটের মাঝে অত্যাবশ্যকীয় মেডিক্যাল সামগ্রীর দাম বাড়িয়ে সরবরাহ করছে চিন, সরব দিল্লি

লাদাখ সংঘাতের বরফ গলে যেতে শুরু করতেই ভারতের করোনার দ্বিতীয় স্রোত শুরু হয়। পরিস্থিতি দেখে চিন এগিয়ে এসেই কার্যত জানান দেয় যে , তারা দিল্লির পাশে রয়েছে। আর দিল্লির পাশে থাকতে তারা করোনাকালে বিভিন্নভাবে উদ্যোগ নিচ্ছে। তবে বাস্তবে সেই পাশে থাকার চিনা উদ্যোগ কার্যত ব্যবসায়িত উদ্যোগ বলেই মনে হতে শুরু করেছে। এর নেপথ্যে রয়েছে বেজিংয়ের বেশ কিছু পদক্ষেপ। যার জবাব দিয়েছে দিল্লি।

 মমতা সরকারকে এড়িয়ে কৃষকদের টাকা দিয়ে নাম কেনার চেষ্টা, মোদী সরকারকে নিশানা করে টুইট স্বরাষ্ট্র দফতরের মমতা সরকারকে এড়িয়ে কৃষকদের টাকা দিয়ে নাম কেনার চেষ্টা, মোদী সরকারকে নিশানা করে টুইট স্বরাষ্ট্র দফতরের

কী ঘটছে?

কী ঘটছে?

প্রসঙ্গত, কিছু ভারতীয় সংস্থা চিনের বহু নির্মাতা সংস্থার থেকে একাধিক মেডিক্যাল সামগ্রী কিনছে। সেই মেডিক্যাল সামগ্রী বর্তমানে কোভিড পরিস্থিতিতে ভারতের বুকে বিপুল পরিমাণে প্রয়োজন। এদিকে, এই অত্যাবশ্যকীয় মেডিক্যাল সামগ্রীর দাম চড়া হারে বাড়িয়ে দিয়েছে চিন। যা মোটেও ভালোভাবে নেয়নি ভারত।

 চিনের কার্গো স্টান্স

চিনের কার্গো স্টান্স

ভারতের তরফে এই মেডিক্যাল অত্যাবশ্যকীয় জিনিসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ করা হয়েছে। চিনের সংস্থাগুলি যাতে দাম কমায় তার জন্য বলা হয়েছে। এছাড়াও সেদেশ থেকে ভারতে যাতে তাড়াতাড়ি মেডিক্যাল সামগ্রী আসে, তার জন্য চিনকে কার্গো বিমানের সংখ্যা ভারতের ক্ষেত্রে বাড়াতে বলা হয়েছে। প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই ভারতে করোনা পরিস্থিতির কারণ দেখিয়ে ব্যবসায়িক তথা রপ্তানী-আমদানীর জন্য ব্যবহৃত সিচুয়ান এয়ারলাইন্সের কার্গো বিমানের সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছে চিন। যার ফলে ভারতে করোনা চিন থেকে আসা সামগ্রী পৌঁছতে দেরি করছে।

অক্সিজেন কনসেট্রেটার নিয়ে সমস্যা

অক্সিজেন কনসেট্রেটার নিয়ে সমস্যা

এদিকে চিন থেকে আসা অক্সিজেন কনসেনট্রেটারগুলি নিম্নমানের বলে জানা যাচ্ছে। যা ভারতের করোনা পরিস্থিতিতে মোটেও সাহায্যকারী নয়। উল্লেখ্য, করোনার প্রথম প্রকোপের সময় চিন, ভারতে পিপিই কিট পাঠাতে শুরু করে। পরবর্তীকালে দেখা যায়, সেই পিপিই কিটগুলি অত্যন্ত খারাপ মানের। এরপর অক্সিজেন কনসেনট্রেটার নিয়েও একই সমস্যা।

অক্সিজেন কনসেনট্রেটার জটিলতা

অক্সিজেন কনসেনট্রেটার জটিলতা

বহু ভারতীয় সংস্থা দাবি করছে যে , চিনের নির্মাতা সংস্থাগুলি ৫ লিটার ও ১০ লিটারের কনসেনট্রেটারের আলাদা আলাদা দাম বলছে। এক একটি সংস্থা এক একটি দাম বলছে। যেখানে চিন ভারতের করোনা পরিস্থিতিতে মানবিকতার হাত বাড়িয়ে সাহায্যের কথা মুখে বলছে, সেখানে এই দেশের বাণিজ্যমহলের এমন কীর্তি রীতিমতো নজর কাড়ছে দিল্লির।

English summary
China surges price for covid supplies, gives cheap meterial, India reacts
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X