• search

শহিদ ভাইয়ের উদ্দেশে আজও এভাবে রাখি উৎসব পালন করেন বোন

  • By Sritama Mitra
Subscribe to Oneindia News
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    লড়াইয়ের ময়দানে গিয়েছিল ভাই। কোটি কোটি দেশবাসীকে রক্ষা করার দায়িত্ব তাঁদের মতো বীরদের হাতে। এমনই এক পুলিশকর্মী রাজেন্দ্র গায়কোয়াড় শহিদ হন লড়াইয়ের ময়দানে। তাঁর বোন জানেন যে ভাই আর কোনও দিনই ফিরে আসবে না । তবুও চলে রাখি উৎসব পালন, ভাইয়ের উদ্দেশে বোন পরান রাখি।

    শহিদ ভাইয়ের উদ্দেশে আজও এভাবে রাখি উৎসব পালন করেন বোন, পড়ুন এক অনন্য কাহিনি

    [আরও পড়ুন:রাখি বন্ধনের আহ্বান 'ভাই' মোদীর কাছে! দেশে অত্যাচার নিয়ে আওয়াজ তুলুন, আবেদন 'বোন' করিমার]

    ভাই নেই, তাঁর চলে যাওয়ার ক্ষত আজও বড়ই যন্ত্রণার বোন শান্তি উইকের কাছে। ২০১৪ সালে ছত্তিশগড়ের দান্তেওয়াড়াতে মাওবাদীদের গুলিতে শহিদ হন ভাই রাজেন্দ্র গায়কোয়াড়। যুদ্ধের ময়দানে ভাই রাজেন্দ্রর বীরত্ব তাঁকে চিরকালই অমর করে রাখবে , তা জানেন শান্তি। তবুও রাখির দিন আসলেই যেন চোখ আবারও সজল হয়ে আসে শান্তির। তিনি প্রার্থনা করেন, ভাই যেখানেই থাকুক সে যেন সুস্থ থাকে। আর ভাইয়ের প্রতি এই অদম্য ভালোবাসা থেকে রাজেন্দ্র মূর্তি গড়েছেন শান্তি। আর সেই মূর্তিতেই রাখি পূর্ণিমার দিন তিনি পরিয়ে দেন রাখি। ২০১৪ সালের পর থেকে এভাবেই শান্তি আর রাজেন্দ্রর রাখি পর্ব চলে।

    [আরও পড়ুন:রাখি উপলক্ষ্যে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা বার্তায় যা বললেন প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি]

    শান্তি আজও স্মরণ করেন ভাইয়ের কথা। পুলিশে যখন রাজেন্দ্র যোগ দেন তখন তাঁকে বার বার বারণ করেছিলেন শান্তি।তবে দেশসেবার জন্য নিবেদিত প্রাণ রাজেন্দ্র নিজের জেদে অটল ছিলেন। আর সেই জেদ ধরে রেখেই জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত লাড়াই করে বীরের মৃত্যু বরণ করেন। যা আজও তাঁর পরিবারের কাছে গর্বের।

    [আরও পড়ুন:চুরি এবার পুলিশ আবাসনে! আতঙ্কে এলাকার বাসিন্দারা]

    English summary
    Chattisgarh woman ties rakhi on her martyred brother, who dies on naxal attack,

    Oneindia - এর ব্রেকিং নিউজের জন্য
    সারাদিন ব্যাপী চটজলদি নিউজ আপডেট পান.

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Oneindia sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Oneindia website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more