• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বকেয়া মেটাল কেন্দ্র! করোনা যুদ্ধে ১৪ টি রাজ্যের জন্য ৬১৯৫ কোটির তহবিল

  • |

ক্রমেই বেড়ে চলেছে প্রাণঘাতী করোনার প্রকোপ। গোটা দেশে ইতিমধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ লক্ষ ছাড়িয়ে গেছে বলে জানা যাচ্ছে। মৃত ৪৬ হাজারেরও বেশি মানুষ। এমতাবস্থায় করোনা বিধ্বস্ত রাজ্য গুলিকে ফের আর্থিক সহায়তার পথে হাঁটল কেন্দ্র। সূত্রের খবর, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইতিমধ্যেই ১৪টি রাজ্যের জন্য রাজস্ব ঘাটতি বাবদ ৬১৯৫ কোটির তহবিল বরাদ্দ করেছে কেন্দ্র।

মহাকরণের সংস্কার নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ রাহুল সিনহার

পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের সুপারিশ মেনেই নয়া বরাদ্দ

পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের সুপারিশ মেনেই নয়া বরাদ্দ

পঞ্চদশ অর্থ কমিশনের সুপারিশ মেনেই এই আর্থিক বরাদ্দ বলে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে। এদিকে করোনাসংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই চলছে গোটা দেশে। সব রাজ্যই যথাসাধ্য চেষ্টা করছে মহামারী প্রতিরোধের। এদিকে রাজ্যগুলির জন্য কেন্দ্রীয় অর্থ বরাদ্দে দাবি উঠেছে প্রথম থেকেই। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেক আগেই দেশের সব রাজ্যের জন্য অর্থ বরাদ্দের দাবি তুলেছিলেন। এবার সেই দাবি কিছুটা হলেও মেটাল কেন্দ্র।

দীর্ঘদিন থেকেই বকো টাকার দাবি করচিল বিরোধী রাজ্যগুলি

দীর্ঘদিন থেকেই বকো টাকার দাবি করচিল বিরোধী রাজ্যগুলি

শুধু এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নন, বিরোধীদের দখলে থাকা একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একই দাবি করছিলেন। পাঞ্জাব, কেরলের মতো রাজ্যগুলির দাবিও খানিক এক। এদিকে একটানা লকডাউনের জেরে রাজ্যগুলির ভাঁড়ারে টান পড়ছে। ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ থাকায় বিপুল রাজস্ব ঘাটতিও দেখা দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে রাজস্ব ঘাটতি এবং জিএসটি ক্ষতিপূরণ বাবদ রাজ্যের যে বিপুল বকেয়া আছে, তা দ্রুত মিটিয়ে দেওয়ার দাবি করে একাধিক রাজ্য।

টুইট অনুরাগ ঠাকুরের

টুইট অনুরাগ ঠাকুরের

সম্প্রতি একটি টুইট বার্তায় নতুন অর্থ বরাদ্দের কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থ ও কর্পোরেট বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। এর আগে ৩রা এপ্রিল, ১১ই মে ও ১০ই জুন তিন দফায় রাজ্য গুলির প্রাপ্য মেটাতে দেখা যায় কেন্দ্রকে। প্রথম দফায় স্টেট ডিজাস্টার রিস্ক ম্যানেজমেন্ট ফান্ড' (এসডিআরএমএফ) বাবদ বরাদ্দ করা হয় ১১ হাজার ৯২ কোটি টাকা।

কোন কোন কাজে ব্যবহার করা যাবে এই অর্থ

কোন কোন কাজে ব্যবহার করা যাবে এই অর্থ

এদিকে এই অর্থ রাজ্যগুলি কী কাজে ব্যবহার করতে পারবে তাও স্পষ্ট করে দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। কোয়ারেন্টাইনের সুবিধা, করোনার নমুনা সংগ্রহ, স্ক্রিনিং, ল্য‌াবরেটরি তৈরি, থার্মাল স্ক্যানার, ভেন্টিলেটার, স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) কেনা ছাড়াও সরকারি হাসপাতালের জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী কেনা যাবে নয়া তহবিল থেকে।

কোন রাজ্য কত পেল ?

কোন রাজ্য কত পেল ?

এদিকে সর্বশেষ অনুদানের আওতায় অন্ধ্রপ্রদেশের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৪৯১.৪০ কোটি টাকা। অসমকে দেওয়া হচ্ছে ৬৩১.৫ কোটি টাকা, হিমাচলপ্রদেশের জন্য ৯৫২.৪ কোটি টাকা, কেরলের জন্য ১২৭৬.৯ কোটি টাকা; মণিপুরের জন্য ২৩৫ কোটি টাকা; মেঘালয়ের জন্য ৪০ কোটি টাকা, নাগাল্যান্ডের জন্য ৩২৬ কোটি টাকা; পাঞ্জাবের জন্য ৬৩৮ কোটি টাকা; তামিলনাড়ুর জন্য ৩৩৫.৪ কোটি টাকা; ত্রিপুরার জন্য ২৬৯.৬ কোটি টাকা; উত্তরাখণ্ডের জন্য ৪২৩ কোটি টাকা, এবং পশ্চিমবঙ্গের জন্য ৪১৭.৭ কোটি টাকা।

ওএনজিসির ৩১ জন কর্মী করোনা আক্রান্ত

English summary
center has given rs 6195 crore to 14 states to fight coronavirus following the recommendations of 15th finance commission
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X