• search
For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

পথ চলার শুরুতেই বড়সড় ধাক্কা ‘কো-উইন’ অ্যাপে, দেশজুড়ে থমকাচ্ছে করোনা টিকাকরণ

  • |

গত সপ্তাহ থেকেই জরুরিভিত্তিতে করোনা টিকাকরণ শুরু হয়েছে গোটা দেশজুড়ে। যদিও প্রথম পর্যায়ের টিকাকরণে বেশ কিছু ত্রুটি চোখে পড়ছে এখন থেকেই। এদিকে গোটা কর্মসূচি সঠিকভাবে রূপায়নের লক্ষ্যে কেন্দ্রের তরফে চালু করা হয় 'কো-উইন' অ্যাপ। কিন্তু পথ চলার শুরু থেকেই ধাক্কা খাচ্ছে এই অ্যাপ। অভিযোগ সার্ভারজনিত সমস্যার জেরে বেকায়দায় পড়ছেন ব্যবহারকারীরা।

মঙ্গলবারও বসল সার্ভার

মঙ্গলবারও বসল সার্ভার

এদিকে ছোটখাটো 'গ্লিচ' ও সম্পূর্ণরূপে সার্ভার বসে যাওয়ার ঘটনায় ফের দ্বিতীয়দিবারের জন্য ব্যর্থ এই অ্যাপ, অভিযোগ এমনটাই। সোমবার প্রথমবারের জন্য অ্যাপে গন্ডগোল ধরা পড়লেও প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ভুল সংশোধন করে ফেলেন কেন্দ্রীয় প্রযুক্তিবিদরা, কিন্তু সরকারি কাজে অ্যাপের এই গন্ডগোলে যে স্বভাবতই বিরক্ত স্বাস্থ্যবিদরা, তা স্পষ্ট।

 কো-উইনের গন্ডগোলে থমকে রেজিস্ট্রেশন

কো-উইনের গন্ডগোলে থমকে রেজিস্ট্রেশন

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে খবর, রবিবার পাঞ্জাবের মত হরিয়ানাতেও টিকাকরণের ক্ষেত্রে কো-উইন ব্যবহারের নিয়ম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে। সূত্রের খবর, বর্তমানে প্রি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই টিকাকরণের কাজ চলবে এবং পরে আধিকারিকরা সিস্টেমে বাকি তথ্য তুলে দেবেন। এ প্রসঙ্গে গুরগাঁওয়ের এক স্বাস্থ্য আধিকারিকের বক্তব্য, "শুরু থেকেই গন্ডগোল করছে কো-উইন। রবিবারে টিকা নেওয়ার পর এক ব্যক্তির কাছে সোমবার এসে পৌঁছায় টিকা সংক্রান্ত তথ্য, যা আসলে দু'দিন আগেই পৌঁছানোর কথা!"

 কো-উইন সার্ভার সমস্যায় থমকাচ্ছে টিকাকরণের গতি

কো-উইন সার্ভার সমস্যায় থমকাচ্ছে টিকাকরণের গতি

কো-উইন সার্ভারের প্রযুক্তিগত সমস্যার জেরে অসমে দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে বলে খবর। সোমবার ৬,৫০০ স্বাস্থ্যকর্মীকে টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও মাত্র ২,০০০ জনকে টিকা দেওয়া সম্ভব হয়। কো-উইনে গ্লিচের জেরে অসমের ১২টি জেলার ২৪টি সাইটে থমকে যায় টিকাকরণ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সূত্রে খবর, কো-উইনের কারণে শনিবারের থেকে রবিবারে আরও কম সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মীর টিকাকরণ হয়।

 ডিজিটালের বদলে ম্যানুয়ালেই ভরসা

ডিজিটালের বদলে ম্যানুয়ালেই ভরসা

রাজনীতিকদের মতে, ডিজিটাল ভারত গড়ার স্বপ্ন দেখলেও টিকাকরণের ক্ষেত্রে ভরসা হল সেই 'ম্যানুয়াল'-ই! জানা গেছে, তেলেঙ্গানায় টিকাকরণ কর্মসূচি চলছে হায়দরাবাদের এসআর নগরের সরকারি হাসপাতালে। "কো-উইন বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে তথ্য লিখে রাখতে হচ্ছে, এতে দেরি হলেও আপাতত এটাই একমাত্র পন্থা", এমনটাই জানান হাসপাতালে টিকাকরণের দায়িত্বে থাকা আধিকারিক আর মেরি প্রেমিলা।

টিকাকরণের সম্বন্ধিত তথ্য প্রদানে বাড়ছে সমস্যা

টিকাকরণের সম্বন্ধিত তথ্য প্রদানে বাড়ছে সমস্যা

কো-উইন অ্যাপের মত অটোমেটেড সিস্টেম ছাড়া নাগরিকদের টিকাকরণ সংক্রান্ত তথ্য জানাতে বাড়ছে সমস্যা, সেক্ষেত্রে কলসেন্টারগুলিই ভরসা, এমনটাই মত স্বাস্থ্য আধিকারিকদের। যদিও মহারাষ্ট্রের খবর বলছে অন্য কথা। মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্য আধিকারিকরা জানিয়েছেন, "সোমবার ২৮৫টির মধ্যে মাত্র অর্ধেক সাইটেই টিকাকরণ হয়েছে। যদিও কো-উইন অ্যাপে যেটুকু গ্লিচ ছিল, তা সংশোধন হয়ে গেছে।"

প্রেসিডেন্ট বদলেও নীতির বদল নয়! ট্রাম্পের পথেই হাঁটবেন, বড় ঘোষণা বাইডেনের

English summary
Server Problems in ‘Co-Win’ app, Vaccination Problems in Multiple States
চটজলদি খবরের আপডেট পান
Enable
x
Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X